এলকোহল চা

এলকোহল চা
– চা খেয়ে কেউ মাতাল হয় আপনার কাছেই প্রথম শুনলাম?
– সত্যি বলছি আমার মাতাল মাতাল লাগছে!
– ঢং করবেন না অনিকেত !
– ঢং নয় সারিকা, আমি আপনার চায়ের স্বাদে তলিয়ে গেছি। এমন সুস্বাদু চা জীবনে প্রথম খেলাম।
– প্রশংসার জন্য থ্যাঙ্কস।
– ইউ আর ওয়েলকাম, আচ্ছা আপনি কী চায়ে এলকোহল দিয়েছেন ?
– কীসব উদ্ভট কথা বলেন চায়ে এলকোহল দিবো কেন ?
– তাহলে আমার এমন উদাস উদাস লাগছে কেন ?
– মনে হয় আপনার ব্রেইন ডিফেক্ট হয়ে গেছে!
– হতেও পারে অসম্ভব কিছু না!
– অনি আপনার সুচিকিৎসা প্রয়োজন!
– সুচিকিৎসা করে লাভ নেই আপনি বরং এলকোহল বাড়িয়ে আরেক পেগ চা দিন, খেয়ে অমর হয়ে যাই!
– আরেক কাপ খাবেন বললেই হয়, ঢং করার কী দরকার?
– চায়ের নেশা মাথায় উঠে গেছে, আরেক পেগ চা নিয়ে আসুন প্লিজ।
– আচ্ছা স্থির হয়ে বসুন, আনছি!
ডা. সারিকা কিচেনে চা বানাতে যাচ্ছেন। কিচেন থেকে স্পুনের টুংটাং শব্দ ভেসে আসছে। চায়ের কাপে জলতরঙ্গের অপূর্ব ছন্দে এলকোহল চা প্রস্তুত হচ্ছে। দুধ চা এমন টেস্টি হতে পারে আমার ধারনা ছিলনা। এক কাপ খেয়েই শরীর দুলছে। সূতা ছেড়া ঘুড়ির মতো মনটা উড়ছে অনন্ত আকাশে। আমি কী মাতাল হয়ে গেছি! চা খেয়ে তো কেউ মাতাল হয় না, তাহলে আমার এমন লাগছে কেন? আমার কী হয়েছে? ডিগবাজি দিতে ইচ্ছে করছে কেন? একটা ডিগবাজি দিবো নাকি?
– আরে অনি! কী করছেন? কী করছেন এসব?
– ডিগবাজি দিচ্ছি সারিকা!
– বাবা বাসায়, প্লিজ পাগলামি বন্ধ করুন!
– আপনার বাবাকে ডাকুন আঙ্কেলের সাথে একটু কুলাকুলি করি।
– উফ্ থামুন তো, নিন চা খেয়ে ফুটেন!
– আজ আমি কোথাও যাবো না!
– মানে?
– মানে কিছু না, আপনি রেডি হয়ে আসুন আপনাকে নিয়ে তিনশো ফিট যাবো।
– তিনশো ফিট তো দূরের কথা দেড়শ ফিটও যাওয়া যাবেনা!
– এমন নিঠুরভাবে বলবেন না প্লিজ!
– আম্মু দিবেনা!
– তাহলে চলুন পালিয়ে যাই?
– কোথায়?
– গহীন অরণ্যে, সুন্দরবনের দিকে চলে যাই।
– জঙ্গলে যাবেন ?
– হুম, “গাছের উপর আদিম আবাস বানাবো, তারপর পাথরে পাথর ঘষে আগুন জ্বালাবো, হৃদয়ে হৃদয় ঘষে প্রেম!”
– গহীন সুন্দরবনে চা পাবেন কোথায়?
– চা পাতি আর কেটলি নিয়ে যাবো।
– দুধ চায়ের কী হবে?
– একটা দুধেল বাঘিনী পুষবো তারপর প্রতিদিন সকালে বাঘের দুধের রাজকীয় চা, অসাধারণ হবে!
– শুধু চা খেয়ে জীবন চলবে?
– মাঝে মাঝে শিকারে বের হবো। ওহ্ ভালো কথা সাথে কয়েক কেজি লবণ নিতে হবে। লবণ ছাড়া কিছু খেতে পারিনা!
ডা. সারিকা হাসছে! আশ্চর্য এই মেয়ের হাসি এতো সুন্দর কেন? এই মেয়ের হাসি শুনে তো বনদস্যু চলে আসবে!
প্লিজ সারিকা, হাসি বন্ধ করুন প্লিজ

গল্পের বিষয়:
গল্প

Share This Post

আরও গল্প

সর্বাধিক পঠিত