রোমান্টিক অত্যাচার

রোমান্টিক অত্যাচার

আমি ওয়াছিফ। অনাস পরিক্ষা দিয়ে রেজাল্টের অপেক্ষা করছি।এখন কাজ নেই তাই একটু বেশিই ঘুমাই।আমরা দুই ভাই।বড় ভাইয়া চাকরি করে।
ভাই,ভাবি,আম্মু,আমি আর মামনি মানে ভাইয়ার মেয়ে তাসফিয়া।
১০টাই ঘুম থেকে উঠছি।তখন আম্মু আর ভাবি কথা বলছে
ভাবিঃ আম্মু আমি আর একা একা ঘরের সব কাজ পারছি না।এখন একজন আনার ব্যাবস্থা করো।
আমিঃ বুয়া আনো।
ভাবিঃ বুয়া আনবে!তোর ভাইয়া বাইরের কারো হাতের রান্না খাই না।আর বাইরের লোক দিয়ে ভরসা নাই।
আমিঃ তাইলে তোমার বুইনরে আনলেই তো হয়।
ভাবিঃ একদম ঠিক বলেছিস।ওকে একেবারে এবাড়িতে আনবো।
আমিঃ একেবারে আনবা মানে?
ভাবিঃ তোর আর সামিয়ার বিয়ে ঠিক করেছি আমরা।
(সামিয়া আপু আমার সিক্রেট ক্রাস)
আমিঃ ঐ জল্লাদের কাছে আমারে তুলে দিয়ো না প্লিজ (আমার মনে মনে লুঙ্গি ডান্স হচ্ছে)
ভাবিঃ থামতো!আমি কি শিশু নাকি।কিছু বুঝি না মনে হচ্ছে?যা যা রুমে গিয়ে মনের সুখে নাচ
আমিঃ তু,তু,তুমি কেম্নে বুঝলা?
ভাবিঃ সব বুঝি।যা যা রুমে যা।

(রুমে এসে হাল্কা পাতলা নেচে নিলাম।নাচতে নাচতে মাথায় প্রশ্ন আস্লো সামিয়া আপুর যদি বফ থাকে?যদি সে বিয়েতে রাজি না থাকে?যদি বিয়ের দিন পালিয়ে যায়?😭।এসব ভাবতে ভাবতে পাগোল হয়ে যাচ্ছিলাম।তখন মনে হলো আমি মনে হয়আপুকে ভালোবেসে ফেলছি😭।টেনশন করতে করতে বাইরে গেলাম তবে স্বস্তি পেলাম না।তখন মনে হল আমার ভয় কাটাইতে হলে আমার বেস্ট ফ্রেন্ড মানে আমার ভাবির সাথে সব খুলে বলতে হবে।বাসায় গেলাম সন্ধার একটু পর।হাত মুখ ধুয়ে ভাবির রুমে।
গিয়ে দেখি ভাইয়া আর ভাবি হাত ধরা ধরি করে বসে আছে।আমারে দেখে লাফ দিয়ে সরে গিয়ে আমারে প্রশ্ন
ভাইয়াঃ নক করে আসতে পারিস না?
ভাবিঃ ওরে বকছো কেন?কিছু বলবি ওয়াছিফ?
আমিঃ হ্যা ভাবি।
ভাবিঃ তুই বিয়ে তে রাজি তো?(একটু ভয় পেয়ে)
আমিঃ তোমার সাথে একটু কথা আছে।বাইরা আসবা?
ভাইয়াঃ এখন ভাই পর?
আমিঃ তাইলে তোমাদের সাম্নেই বলি?
ভাবিঃ বল।

আমিঃ ভাবি আমি মনে হয় সামিয়া আপুরে ভালোবেসে ফেলেছি।সকাল থেকে একবারও ওর কথা ভুলতে পারি নি।
ভাবিঃ দেখেছো আমার বোনের জাদু?আমার দেবরজি প্রেমে পড়েছে।
আমিঃ ভাবি মজা নিয়ো না প্লিজ।আমার খুব টেনশন হচ্ছে
ভাবিঃ কি টেনশন?

ভাইয়াঃ কি আবার!সামিয়ার বয় ফ্রেন্ড আছে কিনা এই সব।আসলে আমার ভাই তো।তোমার সাথে বিয়ে ঠিক হওয়ার সময়ও আমার একই টেনশন ছিল
আমিঃ সত্তি ভাইয়া তুমি আমারই ভাই।
ভাবিঃ এখন আমি বুঝি কেউ নই?(অভিমানী সুরে)
আমিঃ তুমি না থাকলে রাস্তা ক্লিয়ার হইতো বা তো।তুমি তো আমার বেস্ট ফ্রেন্ড
ভাবিঃ হইছে হইছে।হাওয়া দেয়া লাগবে না।আর হ্যা তোর টেনশনের কোনো কারন নেই।আর ৩দিন পর তোর বিয়ে।ডিনার করে লিস্ট করতে হবে।
আমিঃ আচ্ছা।ভাবি লাভ য়্যু।😘
ভাবিঃ যা ছ্যামড়া।😂
রাতের খাওয়া শেষে কাদের কাদের দাওয়াত দিতে হবে লিস্ট করে নিলাম।

(আমার রুমে এসে মনের আনন্দে দিলাম ঘুম।আর মাত্র কয়েকটা দিন।আস্তে আস্তে প্রতিক্ষার ঘন্টা পেরিয়ে গেল।আজ আমার বিয়ে।অনেক ব্যস্ত।আমরা গেলাম সামিয়া আপু থুক্কু সামিয়াদের বাসায়।ভাবি আমাদের সাথেই গেল।আমার গাড়িতে তাসফিয়া,ভাইয়া,আমি আর ভাবি।
তাসফিয়াঃ তাত্তু আমলা কাদেল বাতায় দাত্তি?
ভাবিঃ তোমার ছোট আম্মুর বাসায় মামনি।
তাসফিয়াঃ ও।আমি ছোত আম্মুকে তিনি।আমাল থামিয়া খালামনি।
আমিঃ 😶😶😶😶😶

সামিয়াদের বাসায় চলে আসলাম। বিয়ের পিড়িতে বসে আছি। কাজি বিয়ে পড়াচ্ছে। এবার কবুল বলতে হবে।কিন্তু একি আমার অবস্থা খারাপ। লজ্জায় কবুল বলতে পারছি না।আমি আরো অবাক হইলাম সামিয়ার কবুল বলার গতি দেখে। একে বারে কবুল,কবুল,কবুল।
বিয়ে পড়ানো শেষ।আমি এবার টাস্কি খাইলাম বিদায়ের সময়।সে কি কান্না।
বাসায় আসলাম।আসার সাথে সাথে
আম্মুঃদেখি দেখি আমার ছোট মেয়েকে।
সাথে সবাই আমারে লাত্তি ঘুষি মানে ধাক্কা দিয়ে সরাইয়া আমার বউকে নিয়ে ব্যস্ত।এই ঘটনা দেখে একটা জিনিস বুঝলাম যে আর যাই হোক এবার এবাড়িতে আমার আর কোনো দাম নেই।মনের দুঃখে ছাদে গিয়ে Atif Aslamএর গান গুলো এক এক করে শুনছি।এমন সময়
ভাবিঃএই তোর কি বুদ্ধি হবে না?
আমিঃকেন?
ভাবিঃতোর বউ ঘরে বসে আছে।যা যা ঘরে যা।
আমি বেচারা আর কিছু না বলে ঘরে গেলাম।আমি ঘরে গিয়েই টাস্কি খাইলাম।বউ আমার ইয়া বড় এক ঘোমটা দিয়ে বসে আছে।আমি শুনছি বাসর রাতে বউ স্বামীকে সালাম করে পিয়ার ভালোবাসা করে।কিন্তু আমার কপালে এমন কিছুই নাই।😭😭😭
আমি খাটের দিকে যাচ্ছি এমন সময়
সামিঃএই ওযু করে আই।যা😡
আমিঃমানে?
সামিঃআমরা নতুন জীবন শুরু করতে যাচ্ছি।তাই আল্লাহর কাছে দোয়া করতে হবে।যা যা নামায পড়তে হবে।যা যা😡
আমিঃআচ্ছা।
ওযু করে দুজনে নামায পড়ে নিলাম।বৌ আমার আবার খাটে গিয়ে ঘোমটা দিয়ে বসে আছে।
আমি খাটের কাছে যাচ্ছি।এমন সময়
সামিঃএই নে তোর বালিশ।এবার সোফায় ঘূমা।
আমিঃআপ্নারে দেখতেও পারলাম না।আর আপনি কইতেছেন দূরে যায়তে?
সামিঃছোট মানুষের অত দেখতে নেই।যা যা।ঐখানে ঘুমা।😡😡
আমিঃআমি শুনেছি বাসর রাতে বর বউ কত কি করে।আর আমারে এত দূরে থাকতে হচ্ছে।ওসব করা দুরের কথা আমি তো আমার বউকেও দেখতে পারলাম না।😭😭😭
সামিঃবাবা!পিচ্চি দেখি সব বুঝে😂😂😂। তা পিচ্চি তুই কি সত্যি বউকে দেখবি?
আমিঃহুম।😂
সামিঃদেখতে দিতে পারি তবে একটা কন্ডিশন আছে।
আমিঃআমি সবকিছুতে রাজি।😂😂একটু কাছে আসি?
সামিঃদেখতে পারবা বাবু কিন্তু ছুতে পারবি না।
আমিঃএ কেমন বিচার?😭বউকে দেখতে পারবো তবে ছুতে পারব না😭😭😭?ভাবি এ তুমি কি করলা?(চিৎকার করে)
সামিঃচেচাইলে দেখতেও পারবি না😡।
আমিঃনেই মামার থেকে কানা মামা ভালো।
সামিঃগুড বয়।এবার এখানে আই।
আমি খাটে উঠে।সামিয়ার ঘোমটা ঊঠাইলাম।
আমিঃমাশায়াল্লাহ😍😍😍।কি সুন্দর😍😍😍
সামিয়াঃঅনেক হইছে এখন যা।
আমিঃআর একটু দেখি।নিজের বউরেই তো দেখছি অন্য কাউকে তো না😂😂
সামিঃহইছে হইছে।যা যা দূরে যা।তোরে দিয়ে ভরসা নাই।
আমিঃএভাবে তাড়াই দিতেছেন😓।
সামিঃ(আমার গাল টেনে)ওলে লে লে বাবুতা কষ্ট পাইনা।এখন দূরে যা😡😡😡😡
আমিঃএক্টা কথা বলবো?
সামিঃবল।
আমিঃআপ্নি কি বিয়েতে রাজি ছিলেন না?আপনার কি বয়ফ্রেন্ড আছে?আপনার কি ডিভোর্স চাই?😩😩😩
ঠাসসসসস।ঠাসসসসসস।আমার গালে ২টা ঠাটিয়ে চড়।
আমিঃমারলেন কেন😭😭😭
সামিঃতুই ডিভোর্স এর কথা মুখে আনলি কেন?😠😠😠
অন্য সবাই থাপ্পড় খাওয়ার পর ব্যাথা সহ কস্ট পাই।আমার হলো না।তার করন আপ্নারা দেখলেনই।
আমিঃসরি।
সামিঃঅলে অলে বাবুতা।লেগেছে বুঝি।I am sorry.বাবু।আসলে ডিভোর্স এর কথা শুনে রাগ হয়ে গেছিলো।😣😣সরি বাবুতা
আমিঃঈটস ওকে😊।আমি আপনার কাছে ঘুমাই😁?
সামিঃযা যা।ভাগ।ঊহ একটু আদর দেখাইছি সেই সুযোগ কাজে লাগাইতে আসছে।যা যা।
আমিঃচলেন না একটু গল্প করি।
সামিঃকি গল্প করব?
আমিঃএই ফ্যামিলি প্লানিং।😂
সামিঃকি বললি তুই?😠
আমিঃআরে ওগুলা না।আপনি যা ভাবছেন তা না😂।আমি বলতে চাচ্ছি আমার ফ্যামিলির সাথে কি রকম ব্যবহার করবেন।
সামিঃতোর ফ্যামিলি মানে?😠এটা আমার ফ্যামিলি।তোর ভাবি আমার আপন বোন
তোর ভাতিজি আমার আপন বোনের মেয়ে।তোর ভাই আমার দুলাভাই।তোর আম্মু আমার আম্মু।সুতরাং তোর ফ্যামিলি তোর থেকেও বেশি আপন আমার কাছে।আর তোর ফ্যামিলি আমার ফ্যামিলি কি?আমরা তো একই ফ্যামেলি😊।আর আমি তুই আলাদা নাকি😊?
আমিঃআহ😍।কি শুনাইলা বাবু😘
সামিঃওই তুই আমারে তুমি কইলি কেন?আমি তোর বড়।সো রেস্পেক্ট দে।আর যদি আপুরে কিছু কইচ তাইলে তোর খবর আছে।আর যা এখন ঘুমা।
আমিঃআপ্নার সাথে ঘুমাই?😊
সামিঃযাবি না থাপ্পড় দিবো😠
আমিঃযাচ্ছি যাচ্ছি😭😭😭
কি আর যায় ঘুমাই😩।কবে যে বউকে কাছে পাব কে জানে😩😩।
আমিঃভাবি কাল সবাইরে সারপ্রাইজ দেব।

ভাবিঃকি সারপ্রাইজ?
আমিঃসে সকালেই দেখবা।যাও যাও ঘরে যাও।
ভাবি চলে গেল।আর কাল আমি অফিস জয়েন করবো।তাই রাত না জেগে ঘুমাতে গেলাম।
সামিঃকৈ ছিলি?
আমিঃআপ্নার কাছেই আসতে চাচ্ছিলাম তবে একটা কাজে বাইরে ছিলাম।
সামিঃবুজ্জি বুজ্জি।যা ঘুমা।
আমিঃহুম😊।

সকালে-
সামিঃওঠ।
আমি ওর হাতটা টেনেই আমার গায়ের উপর ফেলে দিয়ে জড়িয়ে ধরলাম।
সামিঃছাড়!😠😠😠
আমিঃআজ আমার অধিকার আছে😎
সামিঃছাড় নাইলে থাপ্পড় দেব😡।
আমি ছেড়ে দিলাম।
সামিঃআমারে জড়িয়ে ধরলি কেন?
আমিঃআমার অধিকার আছে।
সামিঃমানে?
আমিঃচাকরি পাইছি😎
সামিঃমানে?
এমন সময়।
ভাইয়াঃওয়াছিফ অফিস যাবি না?
আমিঃভাইয়া দাড়াও ফ্রেস হয়ে নিই।
ফ্রেশ হয়ে নাস্তা করে।ঘরে গেলাম।আমি রেডি তবে টাই বাধতে পারি না।😭আমি চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি।ওটা ট্রাই করতে করতে বাইরে গেলাম
আমিঃভাইয়া হেল্প😭
ভাইয়াঃআমিও পারি না।
আমিঃতাইলে কেম্নে কি?
ভাইয়াঃতোর ভাবি😎
আমিঃহাইরে কপাল।আমার কপালে নাই।(ন্যাকামি কান্নার সাথে একটু হাল্কা পাতলা চিৎকার)
সামিঃভাইয়া আপু ডাকছে।
ভাইয়া চলে গেল।হয়তো পাওনা নিতে😂।আমার কপালে নাই😩
সামিঃসারা জীবন করেছিস কি?এটাও পারিস না?
ও টাই বেধে দিচ্ছে।এমন সময় আমি ওর কোমর ধরে কাছে টেনে নিলাম।সাথে সাথে জড়িয়ে ধরে।ওর কপালে একটা পাপ্পি বসাই দিছি।

আমিঃআহ।😁পুরা ২মাস পর শান্তি পাইলাম😎
সামিঃএটা কি হইলো?(হাল্কা রাগে আর লজ্জায় লাল হয়)
আমি আর লোভ সাম্লাইতে না পেরে বলেই দিলাম
আমিঃI Love You😇।আর একবার জড়াই ধরি?😁
সামিঃএভাবে প্রপোজ কেউ করে?😡
আমিঃরাতে ভালো করে করব।এখন একটা দেন তো😁
আস্তে করে একটা চড় দিয়ে দিছে😁।
আমিঃএডা কি হইলো?
সামিঃতুই ই তো দিতে বললি
আমিঃওটা না।যেটা দেওয়ার জন্য ভাবি ভাইয়ারে ডাক দিছে সেইটা।
সামিঃভাইয়ারে আপু কখন ডাকছে।ওটা তো আমি তোর টাই বেধে দেব বলে বললাম।
আমিঃদেন না একটা প্লিজ😭
সামিঃউম্মা।😘
আমিঃগালে কেউ দ্যাই😒
সামিঃযাবি না থাপ্পড় লাগাবো?
আমিঃচুমা না দিতে পারলে আর কিছু করা লাগবে না।
সামিঃযা ভাগ লুচ্চা।😡
আমিঃআপ্নি লুচ্চার বউ😝।বাই বাবু😘(দিছি বসাইয়া)
সামিঃলুচ্চা😡।বাই সাবধানে যাস।
আমিঃআচ্ছা বাবু।
সামিঃবাবু বলা বাদ দে সম্মান দে।আর যেয়ে ফোন দিবি।
অফিস গেলাম।মোটামোটি ভালোই কাটলো দিন্টা।দুই ভাই বাসায় আসলাম।খাওয়া দাওয়া শেষে ঘরে গেলাম।গিয়ে দেখি সামি ঘরে নেই।
আমিঃসামি!
কিন্তু কোনো সাড়া নাই।আমি ভাবির ঘরে গেলাম।গিয়ে দেখি দুই বুইন গল্প করতাছে।লজ্জা সরম ভুলে ঘরে ঢুকে
আমিঃমামনি কৈ ভাবি?
ভাবিঃতাস্ফিয়ার খোজে আসছিস না অন্য কারো?😂😂😂
আমিঃভাবি এই জন্য তোমারে এত ভালোবাসি।আমার মনের কথা আরামসে বুঝে যাও।কিন্তু যারে বুঝাইতে চাইছি সে যদি বুঝতো😟।
সামিঃআপু থাকো।আমার ডান হাত টা চুল্কাচ্ছে।আমি ঘরে গেলাম।😡
ভাবিঃযা😂😂😂।হ্যা রে ওয়াছিফ!
আমিঃব্লো ভাবি জান😂
ভাইয়াঃওয়াছিফ সামিয়া ডাকছে।
আমিঃযাচ্ছি যাচ্ছি।😡আমারো বউ আছে।তবে তোমার মত এত বউ পাগলা না😒।
ভাইয়াঃআরে যা যা😒
আমি রুমে গেলাম।গিয়ে
আমিঃসামি!
কিন্তু রুমে নেই।হঠাত দরজা লেগে গেল।পেছনে ফিরে দেখি সামি কোমরে কাপড় গুজে আমার দিকে আগাচ্ছে😩
সামিঃএবার কৈ যাবা চান্দু😡
আমিঃকি,কি,কি করতে চাচ্ছেন আপনি😱
সামিঃতোর মুখে কিচ্ছু আটকাই না!😠
আমিঃকি করলাম😱
সামিঃকি করছিস তাই না😡
বুকে কিল ঘুষি।আমিও কম যায় কিসে😂।ধরছি জড়াইয়া😂।
আমিঃএবার কৈ যাবা বাবু।(উম্মাহ,উম্মাহ)
সামিঃ,,,,,,,,,,,,,,,(লজ্জায় কাত)
আমিঃআমি সত্যি আপ্নারে ভালোবাসি😊😍😍
সামিঃআমিও রে পাগলা।😊ভালো না বাস্লে তোর লুচ্চামি সহ্য করতাম?
আমিঃএভাবে অপমান?যান আপনার কাছে আসবো না।
সামিঃবাবুতার কি লাগ কলেতে?ওলে লে লে গুলুতা।লাগ কলে না পিত্তি😍😍।আতো কাতে আতো।
আমিঃনা আপনি আমারে লুচ্চা বললেন কেন?😡
সামিঃবাবুতা লাগ কলে না।আতো আমি আদল করে দেই।আতো আতো।
এমন সময় আমার ফোনে ফোন আস্লো।অনেক পুরাতন এক দোস্ত।প্রায় ৩০-৩৫মিনিট কথা হলো।তারপর ঘরে গেলাম।
আমিঃআমি কি আপনার পাশে ঘুমাবো?
সামিঃ,,,,,,,,,
আমি বালিশ নিয়ে ওর পাশে শুয়ে পড়লাম।
সামিঃতোর ফোন দে।
আমিঃকেন?
সামিঃদিতে বলছি😡
আমিঃআচ্ছা।
আমি দিয়ে দিলাম।এপাশ ওপাশ করছি।কিন্তু ওর গায়ে হাত দিতেও পারছি না।
আমিঃফোন টা দেন।আমার ঘুম আসছে না।😭ফোনটা দেন
সামিঃদেব না😡
আমিঃফোন না হয় না দেন আপ্নারে তো দেন😊
সামিঃ…………..
বুঝলাম সম্মতি আছে।আমি আর চুপ না থেকে জড়িয়ে ধরলাম।আর
আমিঃI love you বাবুতা।এই আমি আপনাকে তুমি করে বলি😊
সামিঃতুই না ছোট?আপনি আপনি করবি।আর তুই,আপনি সম্পর্ক খুব ভালোবাসার হয়।এখন বেশি কথা না বলে ঘুমা।
গুড নাইট।
ঘুমা দিলাম। জিবনে কোনো দিন এত আরামে ঘুমাই নাই ।কিন্তু ঝামেলা হইলো সকালে। সামি যা করে প্রতিদিন
সামিঃওঠ😡
আমিঃআর একটু ঘুমাই😭
সামিঃউঠবি?😠
আমিঃএক্টা ইয়ে দেন😁
সামিঃসকাল সকাল কি লাগাইলি?😡ঊঠ😡
আমিঃআপ্নি আমারে ভালোই বাসেন না😭
সামিঃতোরে কে ভালোবাসে?😒
আমিঃ,,,,,,,,,,,,,(মনে মনে একটু কষ্ট পাইলাম)

ঊঠে অফিস গেলাম।আজ আর টাই বাধার জন্য চেচামেচি করি নি।টাই না পরেই ভাইয়ার সাথে বের হলাম।
ভাইয়াঃটাই কৈ?
আমিঃলাগবে না।
ভাইয়াঃআমার কাছে আই বেধে দেই।
আমিঃতুমি তো পারো না।আমারটা কেম্নে বাধবা?
ভাইয়াঃচুপ চুপ।
টাই বেধে দিলো।অফিস করে বাসায় আসলাম।চেঞ্জ করে ঘরে গেলাম।সামির সাথে কোনো কথা বললাম না।রুম থেকে বেরিয়ে আসবো এমন সময় সামি হাত ধরে।আমার বুকে ঝাপিয়ে পড়ে।
সামিঃআমি কি করছি?কেন এমন করছিস আমার সাথে?ভালবাসি না বলছি বলে তুই ঐটাই বিশ্বাস করলি?তুই বুঝিস না?আমি তোকে কতটা ভালোবাসি(কান্না করতে করতে করতে)
আমিঃ,,,,,,,,,,,,,,,,,,(একদম চুপ হয়ে নিচের দিকে তাকিয়ে আছি)
সামিঃকিছু বলছিস না কেন?আমি তখন ফাজলামি করে কথাটা বলেছি।প্লিজ ক্ষমা করে দে। I really love you Oasif😭।
আমিঃও লে লে লে আমাল বাবুতা দেখি আমাতে খুব বালোবাতে।আই ল্যাব য়্যু তু বাবুতা।তলো গুমাতে তলো।
সামিঃলাব য়্যু তু।
কে যেন বলেছিলো বউ এর সাথে বাচ্চাদের মত কথা বললে রোমান্স বেশি করা যায়।😁😁😁
আমিঃবাবু তলো আমলা আমাদেল বাবু আনি😊
সামিঃআপ্নি করে বল কুত্তা।😡
আমিঃআপ্নি খালি আমারে বকা দেন😟
সামিঃএখন ঘুমা।
আমিঃএক্টা কথা বলবো?(ভয়ে ভয়ে কারন যেটা বলতে চাচ্ছি সেটা মেনে নিবে কিনা কে জানে)
সামিঃকি?নাভীতে হাত দিবি এই তো!তোর বউ তোর ইচ্ছা।
আমিঃ😘😘😘😘😘বাবুতা।কিন্তু আপনি বুঝলেন কিভাবে যে আমি আপনার নাভীতে হাত দিতে চাচ্ছি?😱
সামিঃকালকে রাতেও আপনি ওখানেই হাত দিয়েছেন।(নাক টিপে দিয়ে)এখন ঘুমা বাবু।
আমিঃকাল শুক্রবার।চলেন না এক্তু………………😁(শয়তানি হাসি)
সামিঃবুঝেছি।এখন থাপ্পড় না খাইতে চাইলে ঘুমা।
আমিঃতাইলে আপনার একটু চুমু খাইতে দেন😁
সামিঃউম্মাহ😘
আমিঃএটা না।😒এই দুইটা খাবো😁(ঠোট দেখিয়ে)
সামিঃকাল্কের মত কামড় দিলে লাত্তি দিয়ে ফেলে দেব😡
আমিঃকাল রাতে এডাও করছি?😱
সামিঃহুম।
আমিঃআমারে থাপ্পড় দেন নি কেন?😱
সামিঃভালোবাসি তাই।
আমিঃলাভ য়্যু টু😘(বসাই দিছি ঠোটে😘)
😘😘😘😘😘😘😘😘😘😘😘😘😘😘😘😘😘😘😘😘😘😘😘😘😘😘
সামিঃআরে ছাড়!দম আটকাই আসতাছে।
আমিঃএরকম কিসি রোজ পাইলে আমি ধন্য।😘
সামিঃইহহহহ!আইছে কিসি নিতে😒।
আমিঃআমার বউ আমার ইচ্ছা😎
সামিঃঅনেক হইছে বাবুতা ঘুমা।
তারপর মনের আনন্দে দিলাম ঘুম।সকালে আবার ডাকাডাকি।
ভাবিঃএই ওঠ
আমিঃআমার পাওনা টা দেন নাই ঊঠবো না।😁(আমি ঘুমের মধ্যে ভাবছি ওটা সামি)
ভাবিঃসামি তোর বরের পাওনা দে।😂😂
আমিঃ(চোখ খুলে)আরে ভাবি তুমি এখানে কেন?
ভাবিঃও বাবা যত দোষ নন্দঘোষ?
সামিঃআপু আম্মু ডাকছে।
ভাবিঃপাওনা দিয়ে আই।😂😂😂😂
ভাবি চলে গেল।
সামিঃতোর মুখে কিচ্ছু বাদে না?😡আপু আজ সারা দিন আমাকে পচাবে।
আমিঃআমি সাথে সাথে থাকবো।আর পচাতে পারবে না।
সামিঃতোর,,,,,,,,,,
(জাপ্টে ধরে দিছি লিপ কিস)
সামিঃছিঃছিঃছিঃমুখ না ধুয়ে!থু থু!
আমিঃআমিই তো আপনার মুখে মুখে দিলাম।আপনি এমন করছেন কেন?
সামিঃচোপ।বেশি না বকে মুখা ধুয়ে আই।😡
আমি মুখ ধুয়ে আসলাম।নাস্তা করে নিলাম।রান্না ঘরে উকি দিলাম।আমার বাবুতা রান্না করছে।আবার ভাবির ঘরে উকি দিলাম।কেউ নাই।এক দৌড় দিয়ে রান্না ঘরে।কোমরটা জড়িয়ে ধরে খোলা চুলের ভিতর দিয়ে ঘাড়ে চুমু দিলাম।
সামিঃআরে ছাড় কেউ দেখে ফেলবে!
আমিঃকেউ দেখবে না।আর আমার বউ আমার যা ইচ্ছা তাই করব।😎
সামিঃবাবু এখন ছাড়।আপু দেখলে অন্য রকম হয়ে যাবে।প্লিজ বাবু ছাড়।
আমিঃতাইলে রুমে আসেন।
সামিঃরান্না বসাইছি।
আমিঃতাইলে একটা পাপ্পি দেন।
সামিঃএই নে যা।(উম্মমাহ)
আমিঃআমি একটা দেই?
সামিঃন্যাকা!😒
সারাদিন ফোন টিপে।নামাযে গেলাম।খেয়ে দেয়ে তাসফিয়াকে নিয়ে বাইরে গেলাম।সারাবিকাল বাইরে ঘুরে ওরে আইস্ক্রিম কিনে দিয়ে বাসায় আসলাম।
তাস্ফিয়া খেতে খেতে বাসায় আসছে।সারা মুখ লাগাইছে।দেখে মনে হচ্ছে বিড়াল।
আমি সাথে করে কিছু চক্লেট আর আইস্ক্রিম আনলাম।তবে লুকিয়ে।কারন মেয়েরা চক্লেট আর আইস্ক্রিম নিয়ে সবার সাথেই ঝগড়া করতে পারে।আমার বাবুতা ও এর বাইরে যাবে না।বাসায় ঢুকে
আমিঃভাবি!আমার মেয়ের মুখ ধুইয়ে দেও।
ভাবিঃএ মা!এ বিড়ালটা কৈ পেলি ওয়াছিফ?😂
তাস্ফিয়াঃআমি বিলাল না😡
সামিঃআম্মু তোমার এ অবস্থা কেন?
তাস্ফিয়াঃতাত্তু আইতক্লিম কিনে দিতে।আই লাবু তাত্তু।😘
ভাবিঃআম্মু আমার কাছে আই।
সবাই যার যার কাজে গেছে।এই ফাকে আমি আইস্ক্রিম গুলা ফ্রিজে লুকাইলাম।২টা ভাবির আর ২টা সামির।পরে ঘরে গেলাম।সামিও আস্লো।
সামিঃবাহ!
আমিঃকি হলো?
সামিঃবাহ!বাসায় যে আরো কেউ আছে তা কারো খেয়ালই নাই।(অভিমান)
আমিঃমানে!(যাক কাজ হইছে)
সামিঃমামনিরে আইস্ক্রিম কিনে দিলি তবে বাসায় যে আরো লোক আছে এটা জানিস?(অভিমান)
আমিঃকে খাবে আবার?😮😮
সামিঃথাক!এমনি মজা করছিলাম।😫(মলিন ভাবে)
ও হইতো ভাবছিলো আমি অরেও বাইরে নিয়ে যাব।দেখতে দেখতে রাত হয়ে গেল।ডিনার শেষে ঘরে আসলাম।আমার বউ আসে না তা আসেই না।কিছুক্ষণ পর আসছে।
আমিঃআসতে এত সময় লাগে?
সামিঃকেন?কি হবে তাড়াতাড়ি এসে?
আমিঃওয়েট।
দৌড়ে চলে আসলাম আইস্ক্রিম নিতে।১টা নিয়ে ওর কাছে গেলাম।
আমিঃবাবুতা এটা আপনার😘
সামিঃ,,,,,,,,,,(খুব খুশি তবে চুপ)
আমিঃআপ্নি ভাব্লেন কি করে যে আমার বাবুর আম্মুর জন্য আমি আইস্ক্রিম আনবো না!আমি তো জানি আমার বাবুর আম্মু একটা আইস্ক্রিম পাগলী😘
সামিঃতোপ শুধু বাবু বাবু!দেখবানে কয়টা নিতে পারিস?এক্টার ডায়পার দুইদিন বদলানোর পর বাবুর কথা মুখেও আনবি না।
আমিঃসে দেখা যাবে।
সামিঃসর সর আগে আইস্ক্রিম খাইতে দে।
ও খাচ্ছে আমি দেখছি।বাচ্চাদের মত খাচ্ছে।আমার তাকিয়া থাকা দেখে
সামিঃখাবি নাকি?
আমিঃহুম😌
সামিঃদেব না😂😂😂।
আমিঃহুম😞😞😞!
সামিঃএই নে।
আমার দিকে বাড়িয়ে দিয়ে।
আমিঃএভাবে খাবো না।আমি যে ভাবেই খাইতে চাই খাইতে দিতে হবে।
সামিঃআচ্ছা।
আমি হাত থেকে নিয়ে আইস্ক্রিমের কিছু ওর কপালে,ঠোটে,দুই গালে গলায় লাগিয়ে দিলাম।
সামিঃএটা কি হলো?
আমিঃকপালে চুমু দিয়ে ওটা খেয়ে নিলাম।এভাবে গালে ঠোটে।তারপর গলায়।
সামিঃবাবা!সাহেব দেখি আজ রোমান্টিক মুডে।
আমিঃএক্টু লিপ গুলা দেন না প্লিজ।
সামিঃএগুলা তো তোর ই।
আমিঃলাব য়্যু বাবুতা।
সামিঃলাব য়্যু তু।
সামিঃতা সাহেব আমাদের মেয়ে হবে না ছেলে?আমার কিন্তু ছেলে চাই।
আমিঃনা মেয়ে চাই।যে আপনার মত হবে
সামিঃনা ছেলে।তোর মত হবে তবে তোর মত দুষ্টু হবে না।
আমিঃদুষ্টুমির দেখেছেন কি?
সামিঃএই কা,কা,কাছে আসবি না।
আমিঃচলেন না একটু দুষ্টুমি করি?
সামিঃ,,,,,,,,,,,,,(কিছু বলার আগে তার ঠোট আমার দখলে)
ভাই আর গভিরে যাচ্ছি না।সকালে ঘুম ভাংলো ওর ভেজা চুলের পানির ঝাপ্টায়।
সামিঃবাবু ওঠ।
আমিঃকাছে আসেন না।
সামিঃসর কোনো দুষ্টুমি না।যা ফ্রেশ হয়ে নে।
আমিঃআপ্নি খুব পতা।
সামিঃ(গালে ঠোট বসিয়ে)অয়েতে বাবুতা?
আমিঃআমি ঠোঠ খাব
সামিঃযাহ!😡
আমিঃএক্টু কোমরটা জড়িয়ে ধরি?
সামিঃঅফিস যেতে হবে যা।
এভাবে চলছে।একদিন বাসায় কেউ নাই।আর হ্যা আমি বাবা হচ্ছি।
সামিঃএই বাবু শোন না!
আমিঃওর পেটে কান দিয়ে।এই পিচ্চি আম্মুকে কেউ লাথি দেই?আম্মুর কষ্ট হয় না বুঝি?এই বলে ওর পেটে একটা চুমু খেলাম।
সামিঃও বাবু আসছে বলে আমারে ভুলে গেলি?
আমিঃনা বাবু।আপ্নিই তো আমার সব।আমার ঠোট না শুখাই গেছে।
সামিঃআসো বাবু কাছে আসো।
আহহহহহহ ঠোট ভিজেছে।

সমাপ্ত

গল্পের বিষয়:
গল্প

Share This Post

আরও গল্প

সর্বাধিক পঠিত