স্বামী স্ত্রীর ভালোবাসার

স্বামী স্ত্রীর ভালোবাসার

বেবি….

বউ : কোনো কথা না বলে আমার থেকে নিজেকে দ্রুত ছাড়িয়ে নিলো,,, ওর এরকম রিয়াক্ট দেখে আমার মনে হলো আমি ভুল করে পাশের বাসায় ঢুকে পড়েছি,,,

আর সেই বাসার ভাবি আমার কাছ থেকে বাঁচার জন্য ওরকম ব্যবহার করলো,,,,,
আমি কাল বিলম্ব না করে দরজার বাইরে গিয়ে ভালো করে দেখে আসলাম,

নাহ! আমিতো নিজের বাসাতেই ঢুকেছি, তাহলে বউ আমার এমন করলো কেন,,???
কারন খোঁজার জন্য ফিরে দেখায় চলে গেলাম,, ,,,

এই রে বউ আমারে সকাল থেকে এত্তগুলা কল করেছে অথচ আমি একটাও ধরিনি ,,,,।
আসলে আমি ইচ্ছে করেই ধরিনি,,,,

কারন?? হুম কারন তো একটা আছেই,, আসলে আমি আজকে অফিস থেকে লাঞ্চ টাইমে ছুটি নিয়ে চলে আসবো বলে ভাবছিলাম।।।

আর আসার সময় বউ এর জন্য তার প্রিয় চকলেট, আইস্ক্রিম, ফুচকা একটা গোলাপ নিয়ে আসছি। বউকে সারপ্রাইজ দেওয়ার জন্যই কিছু বলিনি

আর ফোন ধরিনি ওকে রাগানোর জন্য,,,,, ও রাগী মোডে থাকবে আর আমি ওর রাগ ভাঙানোর জন্য হাজার কারোন খুঁজে বেড়াবো।

এটাই ছিলো আসল কারন,, এই যাহ! ফিরে দেখাতে যাইয়া তো বউ এর রাগের কথা ভুলেই গেছি,,,,আবার গেলাম বউ এর কাছে,,,,,

আমি : বউ গো, ও বউ, রাগ করছো???

বউ : অই একদম ডং করবানা,,,, আমি তোমার কে ,,, আর আমি রাগ করলেই বা তোমার কি?? আমার কাছে আসবা না যাও,

আমি : বুজলাম,বউ আমার রাজ্যের অভিমান নিয়ে কথা গুলো বললো,, আমি এবার শক্ত করে জড়িয়ে ধরে বললাম,পাগলী আমি ফোন ধরিনি কারন অফিস থেকে তাড়াতড়ি এসে তোমাকে নিয়ে ঘুরতে যাবো। আগে বললে তো সারপ্রাইজ থাকতো না।

বউ : লাগবে না আমার সারপ্রাইজ। তোমার কাছেই রাখো। জানো আমার কত দুঃশ্চিন্তা হচ্ছিলো????

আমি : আচ্ছা এরকম ভুল আর হবে না এবারের মতো মাফ করে দাও পাগলীটা প্লিজ।
তোমার জন্য ফুচকা, তোমার পছন্দের চকলেট, আইস্ক্রিম এনেছি

বউ : লাগবে না আমার আমি ওসব কিছুই চাই না।

আমি : এই আমি কানে ধরেছি,, এই দেখো উঠবস করতেছি ১ ২ ৩,, প্লিজ অভিমান করে থেকো না।

বউ : নেকামো করবে না, আমার সামনে থেকে যাও। আমার বউ এর অভিমান হচ্ছে পুরো রাজ্যে অভিমান।

এই অভিমান ভাঙতে রাজ্য জয় করার মতো উদ্যম লাগবে। আমিও হাল ছাড়ার পাত্র না।
হঠাৎ করে মনে হলো,, আমার বউ এর তো বৃষ্টিতে ভিজতে খুব ভাল লাগে, আর এখন বাইরে বৃষ্টি হচ্ছে।

আমি আর ভাবনা চিন্তা না করে, বউকে কোলে তুলে নিলাম।

বউ : এই এই আমাকে কোথায় নিয়ে যাচ্ছো,,, নামিয়ে দাও বলছি।।। নাহলে ভালো হবে না বলছি।

আমি : ভালো খারাপ পরে দেখবো। চুপ চাপ শুয়ে থাকো আমার কোলে। বউ কে নিয়ে ছাদে চলে আসলাম।
বউ আমার বৃষ্টিতে ভিজছে আর আমার দিকে তাকিয়ে আছে।
আমি ওর এই তাকানোর প্রেমেই পড়েছিলাম,, বার বার পড়িও ওর চোখ বলে দিচ্ছে এখন আর কোনো রাগ অভিমান নাই
অতঃপর আমি স্বার্থক,

বউ : আমি তোমাকে যত দেখি ততই অবাক হয়। আমি খুব ভাগ্যবান জানো??

আমি : কেন?

বউ : পৃথীবীতে সেই খুব ভাগ্যবান যে সত্যিকারে ভালোবাসা পায়।
আর আমি তোমার মাঝেই পেয়েছি সে ভাগ্যবান হওয়ার সুযোগ।। তুমি আমাকে ভাগ্যবান করেছো, সত্যিকারের ভালোবাসা দিয়ে তুমি আমাকে সব থেকে সুখী আর ভাগ্যবতী মেয়ে করেছো।

আমি : আমি এতো কিছু জানি না,, শুধু জানি তুমি ভালো থাকো,, তোমার মন সব সময়ই ভালো থাকুক।
আমি তোমাকে এনে দেবো ভালো থাকার সব কারন, তুমি শুধু আমাকে একটু ভালোবাসা দিও, পাগলীটা

বউ : আমি তো শুধু তোমাকেই ভালোবাসবো,, তবে একটু না , অনেক বেশি। বউ আমার বুকে মাথা রেখে ভিজতেছে।
কতটা মায়াবী লাগতেছে সেটা বলার মত দক্ষতা আমার নাই।
ওর ভেজা শেষ হলে ওকে নিয়ে ঘুরতে যাবো।

বি: দ্র:( মাথাব্যথা করলে একটা প্যারাসিটামল খেয়ে নিতে বলাটা হচ্ছে কেয়ারিং ।
আর মাথায় হাত বুলিয়ে দেয়াটা হচ্ছে ভালোবাসা।

গল্পের বিষয়:
গল্প

Share This Post

আরও গল্প

সর্বাধিক পঠিত