সাহসী নারী

সাহসী নারী

আমরা কার মতো এবং কী হতে চাই সেই সম্বন্ধে স্বপ্ন দেখা একটু ভীতিপ্রদ হতে পারে। কিন্তু আপনি যেই মাত্র নিজেকে এই স্বপ্ন দেখার অনুমতি দেবেন, আপনি যা অর্জন করতে পারেন তা দেখে অবাক হয়ে যাবেন। আমার প্রিয় বন্ধু এজরা তার স্বপ্নের জন্য উঠে দাঁড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছিল আর সে কখনও পিছনে ফিরে তাকায় নি। এখন সে আমাকেও আমার স্বপ্নগুলোর জন্য উঠে দাঁড়াতে অনুপ্রাণিত করছে!

এজরা সবসময় একজন সেরামিস্ট হতে চেয়েছিল, সে সেরামিক্স তৈরি করার স্বপ্ন দেখত – বাটি ও ফুলদানি থেকে শুরু করে উন্নত ভাস্কর্য।

তার মা-বাবা চেয়েছিলেন যে সে আরো স্থিতিশীল ও সিরিয়াস কিছু করুক, যেমন ডাক্তার বা শিক্ষক হয়ে উঠুক। সে চালাক হলেও হৃদয় থেকে সৃষ্টিশীল ছিল, আর সেই কারণেই সে এমন একটা আবেগের পিছনে ছুটতে চেয়েছিল যা তাকে উভয়ই হতে দেবে।

এজরা পছন্দ করত একটা ধারণা নিয়ে শুরু করতে, আর তারপরে নিজের হাত দিয়ে কাজ করে সেটাকে বাস্তব রূপ দিতে। সে বিভিন্ন জিনিসকে রূপদান করে ঘণ্টার পর ঘণ্টা সময় কাটাত। অন্য কারো হাতই তার মত এত বেশি স্থির ছিল না, যার ফলে তার কাজের খুঁটিনাটি বিষয়গুলো চিত্তাকর্ষক হয়ে উঠত। সে যখন শুধুমাত্র কোনো মানুষের জন্যই কিছু তৈরি করত তখন তাদের মুখের হাসি দেখে সে খুবই বেশি আনন্দ পেত।

সে তার বন্ধুদের জন্য ছোট ছোট জিনিস তৈরি শুরু করেছিল। সে যখন প্রশংসাপূর্ণ মন্তব্য পেতে শুরু করল, তখন সে সপ্তাহ শেষের দিনগুলোতে একটা ছোট স্টল চালু করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল, আর এই সময় সে তখনও স্কুলে পড়ত।

এখন সে তার শহরের আরো বড় দোকানগুলোতে তার কাজ বিক্রি করে। সে তার শিল্পকর্ম তৈরি করার জন্য নিজের হাত ব্যবহার করে আর সে তার নিজের ব্যবসা চালানোর চ্যালেঞ্জগুলোও উপভোগ করে।

এজরার স্বপ্ন পূরণের যাত্রাপথ সহজ ছিল না, আর এটা এক রাতের মধ্যেই বাস্তবায়িত হয় নি। কিন্তু সে প্রতি দিন ছোট ছোট পদক্ষেপ নিয়েছিল যাতে সে নিশ্চিতভাবে সেখানে পৌঁছাতে পারে।

সে আমাকে যে সব উপদেশ দিয়েছিল তার কয়েকটা এখানে দেওয়া হয়েছে, যা আপনিও অনুসরণ করতে পারেন!

কোনো স্বপ্নই খুব বিশাল, খুব ছোট বা খুব বোকাটে নয়। কখনও নিজের স্বপ্নগুলোকে প্রত্যাখ্যান করবেন না। এটাকে নিজের হিসেবে গ্রহণ করুন, আর জানুন যে আপনি এটার যোগ্য।

আপনার স্বপ্নগুলোকে নিজের কল্পনায় দেখুন। একটা ভিশন বোর্ড তৈরি করতে চেষ্টা করুন। মানুষ, স্থান ও কর্মজীবন সংক্রান্ত যে ছবিগুলো আপনাকে অনুপ্রাণিত করে সেগুলো কাটুন এবং একত্র করুন। এটা এমন কোনো জায়গায় লাগান যা আপনি ঘুম ভাঙার পরেই দেখতে পাবেন, অথবা আপনার ব্যক্তিগত জার্নালে লাগান। এইভাবে আপনার দূরদৃষ্টি প্রতিদিন আপনার নজরের মধ্যেই থাকবে।

আপনার স্বপ্নগুলো অন্যদের সঙ্গে বিনিময় করুন। এটা আপনাকে এগুলোর সাথে লেগে থাকতে সাহায্য করবে, আর এটা আপনার চারপাশে সহায়তা ব্যবস্থাও সৃষ্টি করবে। আপনি জানেন না কারা আপনাকে আপনার স্বপ্নগুলোয় পৌঁছানোর পথে সাহায্য করতে পারে।
তাহলে কোন জিনিসটি আপনাকে আটকাচ্ছে? এখনই শুরু করুন!

গল্পের বিষয়:
গল্প

Share This Post

সর্বাধিক পঠিত