শাস্তি

শাস্তি

স্বামী বাজার নিয়ে থলেটা রেখে বললো, ‘ আজ মাছগুলো ‘ আর কিছু বলার আগেই আমি বলা শুরু করে দিলাম, ” পঁচা তাইনা? তুমিতো জীবনে ভালো জিনিস আনতেই পারোনা। মানুষের স্বামী কত ভালো,ভালো বাজার করে আনে আর তুমিতো একটা গাধা। বাজারে গেলেই বাজারের সব পঁচা শাক,সবজি তুমি থলে করে আনো। এখনো ঠিকমতো বাজারগুলো করতে পারোনা, জীবনে আর করবে কি? কপাল আমার! তোমার মতো একটা গাধার সাথে প্রেম করে বিয়ে করেছি। ” আমার কথা শেষ করার পর তুহিন বলে, ‘ হয়েছে তোমার? ‘

” তোমাকে এতো বলেও আর লাভ কি হবে? দুইদিন পর আবার বাজারে গেলে সব পঁচা বাজারই তুমি আবার নিয়ে আসবে। “

” তুমি কি আমাকে আমার পুরো কথাটা শেষ করতে দিয়েছো? আমি বলতে চাইছিলামযে, আজকের মাছগুলো অনেক টাটকা ও তাজা পেয়েছি। তোমরা মেয়েরাতো সবসময় ছেলেদের দোষ খুঁজতেই লেগে পড়ো। অনেক সময়তো বিনা দোষেও অনেক কথা শুনিয়ে দাও। ” নিজে ডাউন হওয়ার পরেও আমার বাঘের মতো গর্জন থামেনি।

” হয়েছে,হয়েছে! আজ একদিন টাটকা মাছ এনে এতো ভাব নিতে হবে। তুমিতো এমনিতেই সবসময় পঁচা মাছই আনো। আর মেয়েরা কখনো বিনা দোষে কাউকে কথা শোনায়না। ”

” একটা চ্যালেঞ্জ ধরবে? আগামীকালের মধ্যেই তুমি আমাকে আবার বিনা কারণে গালি দিবে। ”

” বিনা কারণে আমি কখনো গালি দিবোনা। ”

” যদি দাও তাহলে কি করবে? ”

” তুমি যেইটা চাও আমি সেইটাই করবো। ” পরেরদিন সকালে তুহিন বাইরে থেকে এসে বলে,

“ এই, তোমাকে একটা কথা বলার ছিলো। ”

“ হুম, বলো। ”

“ তুমি মাইন্ড করবেনাতো? ”

“ আরে ফাজলামি বন্ধ করে বলোতোম ”

“ একচুয়েলি তানিশা, আই এম প্রেগন্যান্ট! ”

“ কি বললে তুমি? হায়রে, আমার জীবনটাই শেষ। তোমার মতো একটা লফর ছেলেকে বিয়ে করে আমার জীবনটাই জাহান্নাম হয়ে গেলো। আমি একটু,একটু সন্দেহ করছিলাম কেন কয়েকদিন ধরে এতো রাত করে বাসায় আসো! তোমাকে আমি পুলিশে দিবো। জেলের ভাত খাইয়েই আমি নিঃশ্বাস নিব। ”

কান্না করে, করে তুহিনকে গালি দেওয়ার সময় আমার হঠাৎ মাথায় আসলোযে তুহিনতো একজন ছেলে আর সে কেমনে প্রেগন্যান্ট হতে পারে? তুহিনের দিকে ভ্যাবাচ্যাকা মার্কা চাহনি দিতেই তুহিন বলে, ” একদিনের মধ্যে বিনা কারণে আমাকে গালি শুনিয়ে দিলেতো? শর্ত অনুযায়ী কথা ছিলো আমাকে একদিনের মধ্যে গালি দিলে আমার ইচ্ছা তা আমি করতে পারবো। তো আমার ইচ্ছা হচ্ছে, আজ থেকে ৩মাসের জন্যে তোমার মেকাপ খরচ ক্যান্সেল! ৩মাস তুমি আর কোন মেকাপ কিনতে পারবেনা। ” এইটা অন্যায়, বড় অন্যায়! কিছুতেই মানা যায়না এইটা। শাস্তি হিসেবে অন্য একটা দেওয়া যেতে পারতো কিন্তু এইটা কিছুতেই মানা যায়না।

গল্পের বিষয়:
ছোট গল্প

Share This Post

সর্বাধিক পঠিত