আব্বুর কাছে খোলা চিঠি

আব্বুর কাছে খোলা চিঠি

প্রিয় আব্বু,

আমার সালাম নিবেন। আজ আমার জন্মদিন। কিনতু আপনার হয়ত মনে নেই। সেই যে কবে! আমি আপনার বাসা ছেড়ে, স্বামির বাড়িতে এসেছি! আপনার হয়ত তাও মনে নেই। থাকার কথা না, আজ প্রায় ২০ বছর আমি আপনার প্রতিদিনের জীবন থেকে একটু একটু করে দুরে চলে এসেছি।

আপনি যখন আমাকে ছোট বেলায় চুল বেঁধে দিয়ে স্কুলে নিয়ে যেতেন তখন টিচার জিগ্গাস করতো আজ চুল বেঁধেছে কে? আমি বলতাম আব্বু। টিচার বলতেন, তাইত! সুন্দর হয়েছে। আপনি যখন আমার আম্মু র পিটুনির হাত থেকে বাঁচাতে আমাকে কোলে নিয়ে অন্য রুমে গিয়ে বসতেন। আর আম্মুকে গজ গজ করে বকা দিতেন, তখন আমার খুব ভালো লাগত। আব্বু আপনি যখন ঈদের শপিং এর টাকা আম্মুর হাতে তুলে বলতেন আমার মেয়েকে যত খুশি জামা কিনে দিয় তাও ভালো লাগত।

যেদিন আমার বিয়ে হয়ে গেল তারপরদিন যখন আমি আপনার পাশে নাস্তা খাওয়ার দিন টিকে হারালাম তখন বুঝলাম,আমি কি হারিয়েছি। আপনি নাস্তার টেবিলে আম্মুর হাতের গরম গরম রুটি খেতেন আর আমাকে দেয়া আম্মুর ডিম টি আমি খেতে না চাইলে নিজে খেয়ে ফেলতেন। কেন? তা আমি বুঝি। আমার সন্তান যখন ভুমিস্ট হচছে তখন আপনি জায়নামাজে। আমার সন্তানের “নানা ভাই” হওয়া যেন আপনার জন্য বিরাট সম্মানের ছিল।

আমি যখন পড়া শুনা শেষ করতে পারছিনা বললাম তখন আমাকে পরীক্ষা দেয়ার জন্য আপনার কাছে নিয়ে আসলেন। আমি কৃতজ্ঞ সব কিছুর জন্য। আর সব কন্যা সন্তানের মত আমারও ইচছা করত আমি আপনার জন্য কিছু করি কিনতু স্বামির দেয়া টাকায় কিছু দিতে ইচছা হতোনা তাই আপনাকে বহু বছর কিছু দিইনি। আব্বু, আপনি কি জানেন? এই বিশাল সংসার এর বয়সসীমা পারি দিতে গিয়ে আমি কি পরিমান হোঁচট খেয়েছি?

যখন স্বামির ঘর থেকে বেরিয়ে রাস্তায় রাস্তায় সারাদিন ঘুরেছিলাম তখন আপনি আমাকে খঁুজে বের করেছিলেন। বুঝিয়ে ছিলেন, আপনি যেমন আমাকে খুঁজছেন তেমনি আমার সন্তানও আমাকে খুঁজছে। আপনি বোঝাতেন। আমি বুঝতে না চাইলেও। হার মানতেন না।

সেই সব ঘটনা এখন মনে হলে ভাবি কতইনা অবুঝ ছিলাম আমি? কিছু চিন্তা না করেই বাসা থেকে বেরিয়ে এসেছিলাম রাগ করে। আপনি জানতেন আমি আপনার কাছেও আসবোনা তাই সব কাজ ফেলে আমাকে খঁুজতে বেরিয়ে পড়েছিলেন। আব্বু আজ আমার সব ই আছে, নিজের উপার্জন, বাড়ি গাড়ি, সুখি সংসার। কিনতু আপনি নেই। আপনাকে একটু সেবা করার সুযোগ ও দিলেননা। একটি দিনের জন্য ও।

একটি সড়ক দুর্ঘটনা আপনাকে আমাদের কাছ থেকে নিয়ে গেল, সাথে নিয়ে গেল আমার সব স্বপ্ন যা আমি আপনাকে দিতে চেয়েছিলাম। আমি আপনাকে হজ্জ্বের টাকাটা দিতে চেয়েছিলাম, আমি আপনার রুমে একটা এসি লাগিয়ে দিতে চেয়েছিলাম, আমি আপনাকে আপনার পকেট খরচ দিতে চেয়েছিলাম।

কিনতু আপনি?? চলে গেছেন। আমি আপনার সাথে কোন কথা বলবোনা আব্বু। আপনার সাথে আমি রাগ করেছি। আপনি ছাড়া সব কেমন শুন্য লাগে। জীবনের কত আলাপ,কত পরামর্শ, কত কথা আপনার সাথেই বলার ইচছা ছিল! কেন এভাবেই চলে গেলেন?

আপনার
লাবন্য

গল্পের বিষয়:
ছোট গল্প

Share This Post

সর্বাধিক পঠিত