তিন বছরের পাহাড়

তিন বছরের পাহাড়

এক ছিল গ্রাম। সেই গ্রাম ঘেঁষে ছিল একটা ছোট পাহাড়। পাহাড়ের নামটা একটু ভিন্ন প্রকৃতির। লোকে একে বলতো, তিন বছরের পাহাড়। এই নামের পিছনে কিন্তু কারণও আছে। অনেকে বলে, ওই পাহাড়ে উঠতে গিয়ে কেউ যদি পড়ে যায়, তাহলে সে তিন বছরের মধ্যে মারা যাবে। একদিন একজন বয়স্ক লোক সেই পাহাড়ে উঠতে উঠতে দেখে একটা খরগোশ। খোরগোশটাকে ধরতে গিয়ে সে পাহাড় থেকে পড়ে গেল। সে ভাবল, তার হাতে আর মাত্র তিন বছর সময় আছে। এসব ভেবে ভেবেই সে অসুস্থ হয়ে গেল। কয়েকদিন পর তার পাশের বাসার এক বাচ্চা ছেলে এসে বললো, “দাদু, তুমি কোনো চিন্তা করো না, কারণ তুমি যদি পাহাড় থেকে একবার পড় তাহলে ৩ বছর বাঁচবে, কিন্তু যদি দুইবার পড়, তাহলে ৬ বছর বাঁচবে। সহজ হিসাব।” একথা শুনে বয়স্ক লোকটি মনে একটু সাহস পেল। লোকটি আবার আনন্দের সাথে পাহাড় বেয়ে উপরে উঠতে লাগলো। সে তারপর অনেকবার পাহাড় থেকে পড়ে গেল, কিন্তু তার মনে আর দুশ্চিন্তা আসলো না। সে ভাবলো, একেকবার পড়ে যাওয়াতে তার আয়ু বেড়েই চলছে। তারপর বয়স্ক লোকটির অসুখ সেরে গেল এবং সে সুখে-শান্তিতে বাকীটা জীবন পার করে দিল।

উপদেশ: ছোট ভুলের জন্য দুশ্চিন্তা করা উচিৎ নয়।

গল্পের বিষয়:
ছোট গল্প

Share This Post

সর্বাধিক পঠিত