আজব পাখির কথা

আজব পাখির কথা

আর্জেন্টাভিস ম্যাগনিফিসেন্স অর্থাৎ অসাধারণ আর্জেন্টীয় পাখি। অনেক বড় বড় পাখি বিলুপ্ত হলেও এটি এখন পর্যন্ত আবিষ্কৃত বিশ্বের উড়তে সক্ষম পাখিদের মধ্যে সর্ববৃহৎ।তাছাড়াও এটি পৃথিবীর শুরু থেকে এখন পর্যন্ত প্রাপ্ত অন্যান্য সকল পাখি প্রজাতির প্রাণীদের মধ্যেও সর্ববৃহৎ উড়নক্ষম পাখি। এসকল প্রাণীদের মধ্যে আছে প্লেইস্টোসিন থেকে হলোসিন যুগে নিউজিল্যান্ডে প্রাপ্ত পাখি হাস্ট ঈগল। আর্জেন্টাভিস ম্যাগনিফিসেন্সকে কোনো কোনো সময় জায়ান্ট টেরাটর্ন নামেও ডাকা হয়। যদিও জায়ান্ট টেরাটর্ন আজ থেকে প্রায় ৬০ লক্ষ বছর পূর্বে মায়োসিন যুগের শেষভাগেই মধ্য ও পশ্চিম আর্জেন্টিনা থেকে বিলুপ্ত হয়ে গেছে। সেখানে প্রাপ্ত ফসিলগুলো এখনো পাখিটির সেই সময়কার অবস্থান নিশ্চিত করছে।

তবে হ্যা এটি প্রমাণিত হয়েছে যে আর্জেন্টাভিস এর হিউমেরাস অস্থি কোনোভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। তার

পাখিটির শারীরিক বৈশিষ্ট্  বর্তমানের গ্রহযোগ্য পরিমাপ প্রসারিত পাখার দৈর্ঘ্য: ৫.৮–৮ মিটার (১৯-২৬ ফুট) এ পাখির পাখার ক্ষেত্রফল: ৭ বর্গমিটার (৭৫ বর্গফুট) পাখার ওজন: ১১.৫ কেজি/বর্গমিটার দৈর্ঘ্য: ৩.৫ মিটার (১১.৫ ফুট) চ্চতা: ১.৭-২ মিটার (৫.৬-৬.৫ ফুট) ওজন: ৬০-১১০ কেজি (১৪০-২৪০ পাউন্ড) তুলনার জন্য বলা যায় যে জীবিত পাখিদের মধ্যে সর্ববৃহৎ প্রসারিত পাখার দৈর্ঘ্য হচ্ছে ওয়ান্ডারিং অ্যালব্যাট্রসের। যার প্রসারিত পাখার দৈর্ঘ্য প্রায় ৩.৬৩ মিটার। অ্যালব্যাট্রস একটি সামুদ্রিক পাখি এবং আর্জেন্টাভিস বিচরণ করতো স্থলভাগে। তাই স্থলভাগের সর্ববৃহৎ পাখি আন্ডিয়ান কনডরও আর্জেন্টাভিসের তুলনায় ছোট। কনডর বর্তমানে স্থলভাগে প্রাপ্ত বিশ্বের সবচেয়ে বড় পাখি। এর প্রসারিত পাখার দৈর্ঘ্য প্রায় ৩ মিটার ও ওজন প্রায় ১২ কেজি।পরেও এটির জীবনকালে কোনোরূপ প্রভাব ফেলে নি। এটির হিউমেরাস মানুষের বাহুর সম্পূর্ণ দৈর্ঘের চেয়ে একটু ছোট।

গল্পের বিষয়:
সাইন্স-ফিকশন

Share This Post

আরও গল্প

সর্বাধিক পঠিত