ভালোবাসি তোমাকে

ভালোবাসি তোমাকে

Gp সিম এ 25 মিনিট Free আছে কি যে করি কাকে যে কল দেই ভাবতে ভাবতে একটি অচেনা নাম্বার এ কল দিলাম ওপাশ থেকে একটা মেয়ে কন্ঠ ভেসে আসলো আমি Hello Hello জি কে বলছেন মেয়ে কথা বলছে আমি অনেক মেয়ের কথা শুনছি কিন্তু এ মেয়ের Voice তো খুব সুন্দর আমি জাহিদ হাসান লেখাপড়া করছি লেখাপড়ার জন্য আমাকে ঢাকায় থাকতে হয় ‌‌‌‌‌‌‌‌চলুন আসল কথায় আসি তারপর‌‌

জাহিদ : আপনি কে

মেয়ে : ফোন টা কি আমি দিয়েছি যে আমাকে বলতে হবে আপনি কে তাই বলুন

জাহিদ : আমি মানুষ আর আপনি?

মেয়ে : ও ভালো আমি ভূত

জাহিদ : কতো দিন হলো মারা গেছেন?

মেয়ে : এই তো আপনার ফোন দেওয়ার 20 মিনিট আগে

জাহিদ : জীবনে কখনো ভূত দেখি নি.. আপনাকে কি একবার দেখা যাবে মেয়ে : হু যাবে কিন্তু তার আগে কিছু কাজ করতে হবে পারবেন

জাহিদ : ভূত দেখার জন্য সব কিছু করতে রাজি আছি বলুন কি কাজ

মেয়ে : আপনার কোন জানা ভালো উকিল আছে ‌‌

জাহিদ : না কেন বলুন তো

মেয়ে : বলছি আপনি যদি ফোন টা না রাখেন এখন তাহলে আমি আপনার নাম্বার টা পুলিসে দিবো আর তারপর আপনার একটা উকিল লাকতে পারে রাত 12.34 এ ফোন দিয়ে ফালতু কথা না বলে ফোন রাখুন বলেই কেটে দেওয়ার আগে

জাহিদ : ও মা এ তো দেখছি ‌‌‌. বোকা মেয়ে

মেয়ে : কি বললেন.. আমি বোকা.. তাহলে আপনি কি

জাহিদ : আমি তো চালাক 4G পোলা

মেয়ে : বোকা মেয়ে কেন বললেন.. তাই বলুন ‌‌

জাহিদ : আসলে আপনি তো কথা সুন্দর করে বলেন ‌. আর voice টা খুব মিষ্টি এ জন্য কথা বলতে মন চাইছে তাই কিছু না খুজে পেয়ে বোকা বললাম‌‌‌

মেয়ে : এমন পাগল তো আগে দেখি নি বাসায় জানে যে আপনি পাগল তা ‌

জাহিদ : দেখ বালিকা সুন্দর voice বলে কথা বলছিলাম না হলে

মেয়ে : সুন্দর voice শুনতে চাইলে রেডিও শুনতে পারেন ‌‌‌‌‌ আমাকে না জ্বালিয়ে ফোন টা রাখুন বাই

জাহিদ : ওকে বাই শুয়ে আছি আর কেন জানি মেয়েটার কথা ভাবছি ‌‌‌‌খুব মায়া মাখা মিষ্টি voice Facebook এ কিছু সময় C8 করার পর.. মাথার একটা বুদ্ধি আসলো সাথে সাথে ওই মেয়ের নাম্বার টা Facebook messenger এ লিখলাম ‌‌‌‌‌ হু একটা আইডি আসলো নাম বৃষ্টি সুন্দর একটি profile picture দেওয়া আছে কিন্তু সেটা ওর না পুতুলের আমি কি Friend requires দিবো ভাবতে ভাবতে ক্লিক দিয়ে দিলাম তারপর লিখলাম ”’HI”কিন্তু বূষ্টি তো Active নেই তাই কোন উত্তর আসলো না সকালে ঘুম থেকে উঠে Messages গিয়ে দেখি বূষ্টির message Hello সাথে সাথে Reply দিলাম

জাহিদ :Hello কেমন আছেন

বৃষ্টি: জি ভালো, আপনি

জাহিদ : জি ভালো কি করেন আপনি

বৃষ্টি : বসে আছি  আপনি কে, পরিচয় দিন

জাহিদ : (কি বলি বুঝতে পারছি না.. যদি বলি কাল রাতের ওই ছেলেটি আমি তাহলে Block দিতে ও পারে) আমি জাহিদ হাসান থাকি ঢাকাতে

বূষ্টি : ও ভালো ঠিক আছে পরে কথা হবে বাই

জাহিদ : ওকে আমার মনের লুকানো কথা একটা গার্লফেন্ড খুব প্রয়োজন যে একা পেলেই শার্টে কলার ধরে বলবে শয়তান জরিয়ে ধরিস না কেন জাহিদ জাহিদ বলে মা ডাক দিলো জি মা বলো তোমার বাবা বিয়ের বিষয় নিয়ে কথা বলবে তুমি আসো জি আসছি মা একটু পর আসছি বাবার বন্ধুর মেয়ের সাথে আমার বিয়ের কথা চলছে আর এদিকে আমি বূষ্টির Voice এর প্রেম পড়ে গেছি  কি যে হবে বুঝতে পারছি না হটাৎ বূষ্টির কল আসলো আমি তো অবাক হয়ে মোবাইলের দিকে তাকিয়ে আছি ‌‌‌‌ ফোন টা ধরার পর

জাহিদ ; hello

বূষ্টি : Sorry আপনাকে আমি কল দেওয়ার জন্য আসলে আমার নাম্বার এ টাকা লোড দিতে গিয়ে ভুল করে আপনার টা দিয়ে দিছে আমার ভাই ওরে আমি বলেছিলাম যে নাম্বার ডায়েল এ আছে এখন আপনি যদি আমার ১০০ টাকা ঐ নাম্বার এ দিয়ে দিতেন তাহলে ভালো হয়

জাহিদ ; হা দিবো কিন্তু

বূষ্টি : কিন্তু কি ?

জাহিদ ; ওই ১০০ টাকা থেকে আমার সাথে ৫ টাকার কথা বলতে হবে

বূষ্টি : কেন বলবো , আর আপনকে তো আমি চিনি না তাহলে কাথা বলার তো কিছু নেই

জাহিদ ; আরে আপনি কেন বুঝতে পারছেন না আপনার কথা আমাকে বার বার কি এক আলাদা সুখ দিচ্ছে যতো শুনি মন চাই আরো শুনতে থাকি

বূষ্টি : হা হা হা পাগল একটা

জাহিদ ; আপনার voice আমাকে পাগল করেছে

বূষ্টি : ওকে আর পাম মারতে হবে না এবার আমার টাকা টা লোড দিয়ে আসুন পরে কথা হবে বাই-{ছেলেটা কি পেলো আমার কথার ভেতরে যে বার বার শুনতে চাই আমার কি হলো ওকে নিয়ে ভাবছি কেন টাকা টা দিলে কে আর কথা বলে দেখা যাবে হাহাহাহা -}জাহিদ; মা মা আমি এখন বিয়ে না কারলে হয় না আমার আর কিছু দিন সময় দাও

মা ; এ কথা আমাকে না বলে তোমার বাবা কে বলে দেখো

জাহিদ ; জি আম্মা লোড এর দোকানে দাড়িয়ে ভাবছি টাকা টা কি দিবো না দিবো না টাকা দিলে যদি আর কল না আসে ভালো কথা আমার বিকাশে তো টাকা আছে তাই পরের বার কল দিলে দিয়ে দিবো আবার কল দিলো কে এ তো দেখি মেঘ না চাইতে বূষ্টি hello

বূষ্টি : কি টাকা টা মেরে দিবেন নাকি এতো সময় লাগে দিতে না দেওয়ার মন থাকলে বলে দিন

জাহিদ ; কি যে বলেন না এখনি দিয়ে দিবো। আপনার নাম কি বূষ্টি

বূষ্টি : মানে আপনি কি করে বললেন

জাহিদ ; সেটা আপনাকে না জানলেও হবে  [বালকা তোমার Facebook friend আমি ]

বূষ্টি :আমার টাকা লাকবে না ভাই ।।রাখি

জাহিদ ; আরে আরে ফোন টা কাটবেন না [ দূর কেটে দিলো ]এই মেয়ে কি ভাবে পটানো যাই , নাম ছাড়া তো আর কিছুই জানি না ১০০ টাকা লোড দিয়ে ।। বাসাই আসলাম

আব্বু ; জাহিদ রেডি হয়ে নাও ,তুমি আর তোমার আম্মু আজ আমার বন্ধুর মেয়ে কে দেখতে যাবে আমি ফোন করে বলে দিয়েছি

জাহিদ ; আব্বু অন্য এক দিন যাই

আব্বু ; আমার কাথার উপর কাথা বলিস বেয়াদব যা রেডি হয়ে নে

জাহিদ ; জি আব্বু [ আমি বুঝলাম না বিয়ে টা আমি করবো পরে করলেও তো হয় এতো তাড়া কিসের সবার ]রুমে গিয়ে দেখি আগে থেকে নতুন জামা কাপড় বার করা আছে এটা আমার মায়ের কাজ মা মা বলে ডাক দিলাম , কিছু সময় পর মা আসলো

মা ; কি হয়েছে রে

জাহিদ ; মা তুমি আব্বু কে বুঝাবে তা না করে আমার জন্য জামা কাপড় বার করে রাখছো

মা ; চল তো আগে মেয়ে দেখে আসি পছন্দ নাও তো হতে পরে

জাহিদ ; ঠিক আছে তুমি ও রেডি হয়ে নাও [ কেমন মেয়ে যে হবে আল্লাহ্‌ জানে , আমার বাবার বন্ধুর মেয়ে ঠিক আছে  কিন্তু আমি কখনো দেখি নাই নাম টা কি তাও জানি না এদিখে আমার আব্বুর ওই মেয়ে পছন্দ যা আছে কপালে তাই হবে ] বিকালে বাসা থেকে মেয়ে দেখার জন্য বার হলাম মা বললো ১ ঘণ্টার বেশি লাকবে ওই মেয়ের বাড়ি যেতে এক ঘণ্টা কি গাড়িতে এমনি বসে থাকা যাই কি করি কি করি ভাবতেই মন টা শয়তানি বুদ্ধি আটলো সাথে সাথে কাজ SMS এ লিখলাম ও বালিকা , তোমাকে নিয়ে একটু সপ্ন দেখছিলাম তা আর বুঝি দেখা হবে না একটু পর সব শেস হয়ে যাবে Send করলাম বূষ্টির নাম্বার এ চুপ চাপ বসে আছি –আমার মোবাইল এর আলো জ্বলে উঠলো বূষ্টি reply দিছে ওই মিয়া সব শেস মানে কি কি করতে যাচ্ছেন , মাথা ঠিক আছে তো এখন আর sms আমাকে কেন দিছেন

জাহিদ; ভয় পাওয়ার কিছু নেই আমি কোন খারপ কাজ কারতে যাচ্ছি না …তবু শেস আর আপনাকে sms দিলাম এ জন্য যে আমি যে কাজ টার জন্য যাচ্ছি আপনি চাইলে থামিয়ে দিয়ে পারেন

বূষ্টি ; ওই ছাড়া তোরে অনেক বুঝাইছি কিন্তু আর না আবার তোরে মজা দেখতে হবে , তুই রেডি থাক

জাহিদ ; মজা কি রাতে দেখবেন না দিনের বেলা আশে পাশে কেও থাকেল দেখবেন না প্লিজ আমার আবার খুব লজ্জা তো [১০০% sure এ মেয়ে আবার রেগে আগুন হবে ] কিছু সময় পর বূষ্টির sms এর reply আসলো

বূষ্টি : তুই একটা .তোরে কাছে পাইলে দিতাম সালা মফিজের বাচ্ছা

জাহিদ; আমার আব্বার নাম তো মফিজ না গো এর আপনার গালি গুলা ও এতো সুন্দর কেন কি মিষ্টি করে গালি দেন হা হা হা হা বাই গাগলি চল বাবা জাহিদ ওই তো মেয়েদের বাড়ি চলে আইছে

জাহিদ ; মা আমার কেমন যেন লাকছে এই প্রথম কোন মেয়ে দেখতে যাবো

মা ; আমি আছি তো তোর সাথে চল মা সামনে এর আমি পেছনে ,বাসার বেল টা দিতেই এক মহিলা আসলো আপনারা চলে আসছেন খুব ভালো আসুন ভেতরে আমি ও মা ভেতরে যাওয়ার পর আমার মা ওই মহিলার সাথে আমার নিয়ে খুব ভালো ভালো কথা বলেই চলেছে আমার কোন দিকে এ খেয়াল নেই আমি শুধু আমাদের দেওয়া নাস্তা খেয়েই চলেছি কিছু সময় পর মেয়ে কে ডাকা হলো ও মা আমার চোখ তো কপালে উঠে গেলো দরজা দিয়ে কে আসছে এটা পরি না মানুষ এতো সুন্দর মেয়ে তো আগে দেখি নি চোখ কি ভুল দেখছে হাতে একটা চিমটি কাটলাম না সব ঠিক আছে পাশে থেকে মা বললো আসো মা আসো এখানে বসো আমার সমনে এই মেয়ে বসলো আমি তো এক ভাবে তাকিয়ে আছি আর মেয়ে টা এই দেখে মিচকি হাসি দিলো ওরে আমি পাগল হয়ে যাবো এই মেয়ের হাসি তো আরো সুন্দর আমার মা বললো মামুনি তোমার নাম কি ?

মেয়ে ; জি বূষ্টি আক্তার

জাহিদ; কি হলো , কি নাম বললো ,বুকের ভেতরে কেও যেন আমার হাতুড়ি দিয়ে মারছে , এতো বুক কাপে কেন আমার গলা তো শুখিয়ে আসছে মাথার শিরা টান টনা করে এ মেয়ে কি আমার অচেনা সেই বূষ্টি তাহলে তো আমার খবর আছে বকের ভেতরে ২ কেজি ভয় নিয়ে আমি আস্তে করে বললাম এই যে শুনছেন

বূষ্টি : জি বলুন

জাহিদ : আমি কি আপনার সাথে আলাদা কথা বলতে পারি পাশে থেকে আমার আম্মু হা হা হা যাও যাও কথা বলো,, এখনি তো দেখছি আর দেরি সয় না

বূষ্টি : আসুন আমার সাথে (ছেলেটা মনে হয় খুব ভালো  একটু লাজুক আছে)

জাহিদ : আপনার নাম কি সত্যি বূষ্টি আপনার কি শুধু এই একটা নাম

বূষ্টি : হা… কিন্তু আপনি ভয় পাচ্ছেন নাকি আমি কিন্তু কিছুই বুঝতে পারছি না একটু আগেও দেখলাম আমার নাম শুনেই আপনি 2 বার পানি খেলেন কারণ টা হু বূষ্টি নামে কোন BF আছে নাকি হু

জাহিদ : না আসলে হয়েছে কি বূষ্টি নামের এক মেয়ে ছোট বেলায় আমার মাথায় ইট মেরে ছিলো সেই থেকে আমি কিছুটা বূষ্টি নামের মেয়ে ভয় পাই আর BF এর কথা বলছেন.. আমার তো কোন এমন কেও নেই.. চাইলে আপনি যাচাই করে দেখতে পারেন এতো চাপা এক সাথে দিলাম বদ হজম হবে না তো আবার

বূষ্টি :আমি ও কিন্তু মারতে পারি ইট

জাহিদ :: হা হা হা বাকি টা তো আর বলি নি আপনি ভয় পাবেন বলে.. ইট মারর পর বুঝতে পারবেন আমি কি করতে পারি

বূষ্টি : আপনি কি Facebook Use করেন চাইলে আমকে Friends list এ নিতে পারেন.. বা আপনার ফোন নাম্বার টা দিন কথা হবে

জাহিদ :: ( খোদা আমাকে এবার রক্ষা করো. যেখানে বাগের ভয়, সেখানে রাত পয় এখন ফোন নাম্বর দিলো তো ওই মেয়ে যদি সেই বূষ্টি হয় তাহলে রাস্তার গালি গুলো তো সামনে থেকেই দিবে. ‌সাথে 2 -1 টা ঘুসি Free Bonus দিতে পারে আসলে হয়েছে কি আমার ফোন টা তে আমার ভাই এর সিম দেওয়া আছে ‌আমি ও খেয়াল করি নাই নিয়ে এসেছি  তাই আপনি আপনার নাম্বার টা আমাকে দিন.. আমি বাসাই গিয়ে ফোন দিবো

বূষ্টি : ওকে 01736°°°°°°°°

জাহিদ : এ নাম্বার তো আমার মুকস্তো

বূষ্টি : জি কি বললেন আপনি

জাহিদ : কিছু না বলছি মুকস্তো করে নিতে পারবো আচ্ছা আপনকে তো আসল কথা বলা হয় নি.. আপনি আছেন কেমন

বূষ্টি : কিছু টা ভালো.. আর আপনি

জাহিদ: ভালো, আপনি পুরোপুরি ভালো না কেন জানতে পারি কি

বূষ্টি : আর বলেন না এই 3’4দিন এক আবাল আমাকে খুব বিরক্ত করছে আপনারা আসার কিছু আগে ও SMS দিয়ে উল্টা পাল্টা লিখছে ‌‌‌.. ওই পোলা কে আমি সামনে পাইলে কুপিয়ে মারবো.. তাই মন ভালো না

জাহিদ : একটু পানি খাবাবেন প্লিজ

বূষ্টি : আপনার কি সমস্যা বলুন তো শুধু পানি খান কেন.. এই খানে দাড়ান আমি নিয়ে আসছি.

জাহিদ : ওকে আমি এখন কি করবো 2 তালা ছাদ থেকে কি লাফ দিবো.. নাকি দৌরে বাড়ি চলে যাবো…, এ তো আমার সেই ফোন এ কথা বলা সেই বূষ্টি.. আরে আবার বলে গেলো ওই পোলারে পাইলে কুপিয়ে মারবে আজ আমি শেস এই সব ভাবছি তখন বূষ্টি আসলো

বূষ্টি : এই নিন আপনার পানি.. আর কিছু বলবেন, না হলে চলুন আম্মুরা আমাদের জন্য অপেক্ষা করছে.

জাহিদ : আপনার মিষ্টি হাসি আমার মনের সব কথা মুছে দিয়েছে, তাই এখন বলার মতো কিছু খুজে পাই না যে ‌‌আমার পাম শুনে বূষ্টি একটি হসি দিয়ে চলে গেলো‌.. আমি খুব সহজে বুঝতে দিবো না যে আমি তার ওই ফোনে কথা বলা ছেলেটি বাইরে আসতেই মা বললো চলো এবার বাসাই যাই সবার থেকে বিদায় নিয়ে এসে বাসে উঠলাম পাশ থেকে মা বলছে

মা : কি রে বাবা মেয়ে কি পছন্দ হয়েছে না অন্য মেয়ে দেখবো

জাহিদ : মা এই টা তুমি কি বলো আব্বুর এই মেয়ে পছন্দ আর গুরুজনদের পছন্দ কে বাদ দিয়ে নিজে কিছু করলে তো আব্বুর সম্মান এর ক্ষতি হবে আব্বুর সম্মান এর জন্য আমি এই মেয়েকে বিয়ে করতে রাজি আছি‌

মা : কি বললি তুই এ তো ভূতের মূখে রাম রাম  তুই বিয়ে করতে রাজি ওই মেয়ে কি যাদু করলো তোরে হু

জাহিদ : কিছু না মা ‌‌গাড়িতে এই সব কিছু বলো না বাসার আসার পর আমাকে আব্বু বললো মেয়ে পছন্দ হয়েছে ‌‌‌‌‌‌মুখটায় আলদা একটি হাসি দেখে আব্বু আমার মনের সব কথা বুঝে নিলো তাহলে বিয়ের দিন ঠিক করে ফেলি কি বলো জাহিদের মা আব্বু আম্মু আমার বিয়ে নিয়ে কথা বলছে  আমার লজ্য করে কেন চুপ চাপ রুমে আসলাম ভাবছি বূষ্টি কে একটা ফোন দিবো কিন্তু কোন নাম্বার দিয়ে দেই আমার নাম্বার তো ওর কাছে আছে  তাতে কি আমি ভয় পাই নাকি ‌এই নাম্বর টা দিয়ে দেখবো মেয়ে কতো টা ভালো আর আমার আম্মুর নাম্বার দিয়ে ভালোবাস দিবো কল দিলাম সাথে সাথে ও পাশ থেকে  বূষ্টি বললো তোর কি খাওয়ালে লজ্জা হবে রে মফিজের বাচ্ছা

জাহিদ : ও রে মা,, এতো রেগে আছেন কেন আমি কি করছি আপনার সাথে কি অপরাধ আমার  একটু তো কথা বলতে চাই.. আর আমি অন্য ছেলেদের মতো না যে মেয়েদের সাথে ফোনে খারাপ ব্যবহার করবো আপনি কি ভেবে দেখছেন আপনাকে আমি কখনো দেখিনি  তবু বার বার আপনার কথা ভাবি. সারা দিনটা আমার আপনকে নিয়ে ভেবেই কেটে যাই মাঝে মাঝে মন চাই আমার এই সপ্নের রানি কে যে কোন উপায়ে একবার দেখবো তাও তো পারি না. ( নিজের বৌও হবে তো কিছু দিন পর তাই একটু পাম দিলাম)

বূষ্টি :দেখুন আপনার এই কথা গুলো আমাকে ও খুব ভাবিয়ে তোলে  কেন জানি না এই অজানা মানুষের সাথে কথা বলতে মন চাই.. কিন্তু তার আর উপায় নেই আমার বিয়ে ঠিক হয়ে গেছে  তাই চাইলেও আর কিছু করা সম্ভব না আপনি প্লিজ বোঝার চেষ্টা করুন

জাহিদ : ( মানে কি এই মেয়ে আমার প্রেমে পড়লো নাকি _কিছু দিন পর আমাদের বিয়ে. আর এই মেয়ে আমার প্রেমে পড়ছে  সে তো নিজেই জানে না যে আমি কে থাক বলবো না যে ভাবে চলছে চলতে থাকুক)

বূষ্টি : চুপ কেন কিছু বলেন

জাহিদ : আমি তোমার একটি কথা বলতে চাই _ বিয়ের না হওয়া পর্যন্ত আমার সাথে কথা বলো. আমি তোমার সাথে শুধু কথা বলতে ও শুনতে চাই.. আর কিছু না

বূষ্টি : পরে ভেবে দেখবো.. এখন বাই রাতে খাবার সময় আব্বু বললো জাহিদ আমি তোর আর বূষ্টি বিয়ে 5 দিন পর ঠিক করেছি ওরা ও তাতে রাজি এখন তুই কি বলিস

জাহিদ: আপনি যে দিন ভালো মনে করেন ওই দিন হবে আস্তে আস্তে বিয়ে দিন আসতে লাগলো কাছে আর এদিকে আমার বূষ্টি ও কাছে আসতে লাগলো ‌‌ঘন্টার পর ঘন্টা কথা বলি পগলি মেয়ে একবার ও বুঝতে পারে না যে আমি হলাম জাহিদ কাল আমার বিয়ে, বাসায় খুব মেহমান সাবাই আনান্দ করছে.. আমি ও সাথে আছি

বূষ্টি : অচেনা অজানা ছেলেটা কাল দিন পর আর আমাকে ফোন দিবে না মন টা বলছে এই বিয়ে থেকে পালিয়ে তার কাছে চলে যাই.. তাও তো পারছি না.. আজ রাতে আমাদের শেস কথা হবে রাত 9 টাই ফোন দিলাম আমি

জাহিদ : Hello

বূষ্টি : আমাকে নিয়ে যাবে.. অল্প সময়ে তোমাকে ভালোবেসে ফেলেছি আমি কাল সকালে আমার বিয়ে এর পর চাইলেও কিছু হবে না.

জাহিদ : নিজেকে শক্ত করো  আমি আছি তোমার সাথে. আর হা কথা দিলাম কাল তোমাকে নিয়ে আসবো আমি তুমি শুধু আমার বধু হবে ‌কি হলো তুমি কি কান্না করছো

বূষ্টি : জি না এই প্রথম বার কাওকে হারানোর ভয় পাচ্ছি তাই এমন হচ্ছে আমি কাল তোমার অপেক্ষায় থাকবো Good Night Bye  Good Night পাগলি টা সত্যি সত্যি আমাকে ভালোবেসে ফেলেছে.. কাল দেখা যাবে কি হয় সকালে ঘুম থেকে উঠলাম.. বিয়ের কাজ চলছে.. বিয়ের সব নিয়ম মেনে কাজ করা হলো. আমি আর আমার পরিবার বাসা থেকে বার হলাম…

বূষ্টি : আজ ও আসবে বলেছি, কৈ আসছে না কেন আর একটু পর তো বর পক্ষ চলে আসবে.. ও কি আসবে না ( ভাবতেই চখের কোনে 2 ফোটা জল চলে আসলো)  কিছু সময় পর ভাবি আসে বললো বর পক্ষ চলে এসেছে.. সবাই তো খুশি কিন্তু আমি না ‌‌‌‌‌আমার বার বার মনে পড়ছে ওই অচেনা ছেলেটির কথা একটু পর আমি সারাজীবনের জন্য হারিয়ে ফেলবো তাকে  বিয়ের কাজ খুব ভালো ভাবে শেস হলো আমাকে নিয়ে বর পক্ষ চলে এসেছে

জাহিদ : আজ আমার বাসর রাত.. বাসার বড়রা বিভিন্ন কথা বলে বাসর ঘরে পাঠিয়ে দিলো প্রবেশ করে দেখি আমার বৌও খাটে নেই কোথায় গেলো ও এই তো জানালার ধারে দাড়িয়ে আকাশ দেখছে আমি পাশে গিয়ে দাড়াতেই চোখ মুছলো কি হয়েছে আপনার. আজ আমাদের মধুর বাসর রাত আর আপনি কানছেন কেন ( ওর কান্না করার কারণ টা হয়তো আপনারা বুঝতে পারছেন)

বূষ্টি: না তেমন কিছু না এমনি

জাহিদ : আপনি কি কাওকে ভালোবাসেন

বূষ্টি: জানি না তবে সত্য. বলতে একটি ছেলে আমার মন কে উলটা পালটা করে দিয়ে গেছে আমায় সে কথা দিয়েছিলো যে আমাকে আজ নিয়ে যাবে. কিন্তু সে আসলো না Sorry আমি তো এখন আপনার Wife. তাই আমি এগুলো বললে আপনি কষ্টো পাবেন Sorry

জাহিদ : সে তার কথা রেখেছে

বূষ্টি: মানে

জাহিদ : আপনি তাকে একটি বার কল দিন তাহলে সব বুঝতে পারবেন  ( আমার কথা শুনে বূষ্টি সাথে সাথে কল দিলো)

বূষ্টি: কল হচ্ছে তো But কেও Receive করে না

জাহিদ : ( এবার আমি আমার ফোন টা বার করে কল ধোরলাম) Hello পাগলি

বূষ্টি: তুমি _তুমি আমার পাগল

জাহিদ : হু আমি তোমার পাগলো বলতেই বূষ্টি জোরে 2 টা থাপ্পর দিয়ে আমাকে জরিয়ে ধরলো…

বূষ্টি: মফিজের বাচ্ছা মফিজ আমাকে এভাবে কষ্টো দিলি কেন বল আর কষ্টো দিবি

জাহিদ : আমার আব্বুর নাম তো মফিজ না  হাহাহাহা ওরে পাগলি যতো কষ্টো দিবো তার থেকে বেশি ভালো বাসবো তোমায় অনেক বেশি ভালোবাসি তোমাকে  I Love You বূষ্টি

বূষ্টি: আজ থেকে তোমাকে এতো ভালোবাসবো যে তুমি পুরো পাগল হয়ে যাবে ‌‌‌.. I Love You To মফিজ তবে রে আবার মফিজ বললে চলো খাটে তারপর মজা দেখাবো জাহিদ ও বূষ্টি অবশেসে তাদের ভালোবাসা পেয়েই গেলো ‌ আর এই ভালোবাসা কখনো ফুরাবে না…..

* সমাপ্ত *

গল্পের বিষয়:
রোমান্টিক

Share This Post

আরও গল্প

সর্বাধিক পঠিত