স্বস্তি দাও বিধাতা

স্বস্তি দাও বিধাতা

হে শান্তিদাতা…
গরমে জীবন যায় যায়-
কি করে বাঁচি, বলো! বাঁচা বড় দায়!
দয়া করো! দয়া করো!!
শান্তির পথ দেখাও!

হে বিধাতা…
আকাশের মেঘকণাগুলা-
সিঞ্চিত হয়ে,সঞ্চিত মেঘ নিয়ে গর্জন করে ;
বিজলির চমক দিয়ে ভয় দেখায়?
মেঘকণা, আমাদের সহায় হও!

হে বৃষ্টিদাতা…
মেঘ বরিষণে দাও বৃষ্টি-
দেহখানি শীতল করি, ভিজে বৃষ্টির ধারায়!
গরম সরিয়ে শীতল সমীরণে, প্রাণে দাও শান্তি!

হে বিধাতা, আকাঙ্ক্ষিত বৃষ্টির তরে!
আর কত! কত সময়!! অপেক্ষায় থাকবো?
প্রাণ খানি জুড়াবো শীতলতায়
শীতল করে দাও এ ধরা!

হে জীবন দাতা, আজ আর…
সবুজ ছায়ায় শীতল হাওয়ায় প্রাণ জুড়ায় না!
সব বিষ বাষ্পে ভরে গেছে
শুদ্ধতার বিশুদ্ধ বাতাস খুঁজে পাওয়া ভার?

হে রক্ষা কর্তা! আমরা…
গাছ কেটে ধ্বংস করেছি বনাঞ্চল-
ইট কাঠের দুনিয়াতে প্রকৃতি বিরুপ
চারিদিকে কৃত্রিমতার ছড়াছড়ি!!!

হে, বিধাতা! সময় এসেছে…
বেশি বেশি গাছ লাগিয়ে, সবুজ অরণ্য বাড়ানোর!
তবেই হবে দূষণ মুক্ত পরিবেশ সবুজের সমারোহে
সবুজময় পরিবেশে শান্তির পরশে জীবন কাটবে আমাদের।

হে ভাগ্যবিধাতা…
আমাদের সুবুদ্ধি দাও, শুরু করার-
আগামিতে উত্তরসূরীরা এগিয়ে নিয়ে যাবে
শান্তিময়, সুন্দর এ পৃথিবী কে!

গল্পের বিষয়:
কবিতা

Share This Post

সর্বাধিক পঠিত