ছদ্মবেশী নেকড়ে

ছদ্মবেশী নেকড়ে

অতি সহজে শিকার ধরার জন্য একদা একটি দুষ্টু নেকড়ে ফন্দী আটলো। একটা ভেড়াকে মেরে ফেলার পর নেকড়েটা তার চামড়া কেটে নিজের গায়ের উপর চাপিয়ে নিল। গায়ে ভেড়ার চামড়া চাপিয়ে সে ভেড়ার পালের সাথে মিশে গেল। ভেড়ার পালের রাখাল সেটা টেরই পেল না। নেকড়ে তো মহাখুশী। তবে রাখাল থাকায় সাথে সাথে নেকড়েটা ভেড়াদের উপর আক্রমণ করতে পারছিল না। নেকড়ে ভাবল, রাতের বেলা তো রাখাল থাকবে না, তখন সে ইচ্ছেমত ভেড়ার মাংস খাবে।

এদিকে সন্ধ্যায় রাখাল ভেড়াদের সাথে সাথে ছদ্মবেশী নেকড়েটাকেও খোঁয়াড়ে ভরে দিল। নেকড়ে চোখ বড় বড় করে পালের সেরা ভেড়াটাকে খুঁজতে লাগল। তার মাংস দিয়েই নেকড়েটা নৌশভোজ করতে চায়। কিন্তু নেকড়ের মনোবাসনা পূর্ণ হলো না। একটু পরেই রাখাল চিন্তা করল, সে রাতে ভেড়ার মাংস খাবে। কিন্তু ভেড়ার বদলে সে ছদ্মবেশী নেকড়েকেই জবাই করে ফেলল। এভাবেই ছদ্মবেশী নেকড়ের জীবনাবসান হলো।

শিক্ষা: অপরের ক্ষতি করতে চায় যে জন, নিজের ক্ষতি ডাকে সেই জন।

গল্পের বিষয়:
শিক্ষনীয় গল্প

Share This Post

আরও গল্প

সর্বাধিক পঠিত