ভালবাসি তোকে

ভালবাসি তোকে

প্রেম করব…..
-কর..
-তোর সাথে…
-চুপ..
-সত্যি সত্যি..
-এতকথা বলিস কেন?
-ভালবাসি তো..
-মাইর খাবি চুপ থাক একদম..
-ওকে চলে যাচ্ছি..
-কই যাস…?
-আমার কথার তো দাম নাই তাইলে থাকব কেন?
-আরে বস, এমন কথা বলতে বারন করছি না তোকে..
-আমি তোকে সত্যি ভালবাসি…
চুপ করে রইল অধরা,
ওর চুপ করে থাকা মানে কথা ঘুরাবে,
অধরা আমার ফ্রেন্ড, আমি অনেক ভালবাসি আর ওকে বলছিও কিন্তু কখনও পাত্তা দেয় না..

কেন যে এমন করে বুঝিনা..
-কিরে বলনা?
-কি বলব?
-একবার বলনা তুইও আমাকে ভালবাসিস…
-দেখ তুই এমন করলে তোর সাথে কথা বলব না আমি..
-আচ্ছা যাই রে…
-কই যাস?
-বাসায় যাব..
-আমাকে নিয়ে যা…
-তুই চলে যাইস আমি যাই..
ওর পাশ থেকে উঠে চলে এলাম, ভাল লাগছে না.. অধরাকে অনেক ভালবাসি কিন্তু ও কেমন জানি..
মন খারাপ করেই বাসায় ফিরলাম, ওর সাথে এমন করাটা উচিত হয় নি..
ওকে প্রতিদিন বাসায় দিয়ে আমি বাসায় ফিরি কিন্তু আজ ওকে রেখে চলে আসলাম,
একটু একটু চিন্তা হচ্ছে..
ওকে রেখে চলা আসার একটা কারন আছে,
আমি খুবই ইমোশনাল আর যদি ওর সাথে থাকি তবে হয়ত ইমোশানটা ধরে রাখতে পারব না আর তাই চলে এলাম..
বাসায় ফিরেই ওকে কল দিলাম,
-হ্যা বল..
-তুই কি বাসায়?
-না হাটছি..
-হাটছিস যে বাসায় কি হেটে যাবি?
-যেভাবেই যাই তাতে তোর কি.?
-সরি..
-কেন?
-তোকে রেখে এলাম এমন আর হবে না..
-জানি এমন আর হবে না..
-মানে?
-আজই তোর সাথে শেষ দেখা ছিল…
-সরি তো আমি আর এমন করব না..
-করতে হবে না, তোর সাথে আর কথা হবে না এটাই শেষ আর দেখা হবে না..
-এমন করছিস কেন ভুল হয়েছে ফ্রেন্ড হিসেবে ক্ষমা করে দে…
-তুই তো ভুল করিস নি.. আমারই ভুল, আমি তোকে ভালবাসতে পারিনি..
-আমি আর তোকে এমন কথা বলব না, আর এমন হবে না..
-হুমম…
নিজেকে বদলাতে হবে বেশ বুঝতে পারছিলাম, ওকে ভালবাসি সেটাও লুকাতে হবে, ওর জন্য পাওয়া কষ্ট লুকাতে হবে ..
আমি পেরেছিলাম ওর বন্ধু হয়েই আছি আর কিছু না..
ওর জন্য অনেক চিন্তা হয় তবুও চুপ করে থাকি..
একদিন একটা খবর শুনে অবাক হলাম,
-তোকে একটা কথা বলা হয় নি…
-কি কথা বল?
-আমি একজনকে ভালবাসি..
(খুব আঘাত করল কথাটা তবুও মুখে হাসি টেনে বললাম)
-তাই নাকি! কে রে ছেলেটা?
-ওর নাম রিয়াদ, ফেসবুকে পরিচয়..
-ও কি করে ও.?
-জব করে..
-ও আচ্ছা তোদের রিলেশান কতদিনের রে?
-এইতো প্রায় একবছর..
-এত দিন আর তুই একবার ও
আমাকে খাওয়ালি না, আজ খাওয়াবি চল…
অধরা অবাক হয়ে তাকিয়ে রইল আমার দিকে,
হয়ত এমন কথা আশা করেনি..
নিজেকে সামলে ওকে নিজের খুশিটা ঠিকই
দেখাতে পেরেছিলাম, জানি ও কষ্ট পেয়েছে আমার এমন আচরনে তবুও….
সেদিন ও আমাকে ফুচকা খাইয়েছিল, অবশ্য ও খায় নি.. আমার দিকে তাকিয়ে ছিল, ওর চোখ দুটো ছলছল করছিল কেন জানি…
খেয়ে ওর সাথে গল্প করছিলাম ওর পাশে বসে..
-অনেকক্ষন বক বক করছি তুই কিছু বলছিস না যে?
-তোর সাথে একটা কথা ছিল..
-কি কথা বলে ফেল…
-রিয়াদ কে নিয়ে…
-ও বল কি কথা?
-রিয়াদ কে তোর কথা বলেছিলাম আর ও বলছে তোর সাথে রিলেশান না রাখতে…
-এই কথা, এটা নিয়ে তুই এত আপসেট?
(কিছু না বলে আমার দিকে তাকিয়ে আছে)
-আরে ওকে ভালবাসিস তো ওকে তো বিয়ে করবি নাকি?
-হুম..
-যাকে বিয়ে করবি তার সাথে সারাটাজীবন কাটাতে হবে তো তাই না?
-হ্যা..
-তো আমি কে রে পাগলি? আজ আছি কাল নেই, আর আমার মত ছেলের তোর জীবনে থাকা আর না থাকাটা একই কথা..

কিন্তু যাকে ভালবাসিস তার থাকটা অনেক বেশি প্রয়োজন…
(ও এক দৃষ্টিতে তাকিয়ে আছে)
-ঐ কি ভাবছিস এত? আমার কষ্ট হবে না, তোর সুখটাই তো আমার সুখ পাগলি.. এখন চল সন্ধ্যা হয়ে আসছে..
কিছু না বলে উঠে দাড়াল..
রিক্সায় দুজন বসে আছি, জানি এটা হয়ত ওর পাশে থাকার শেষ সময়..
-দেখ আমাদের তো আর কথা হবে না, এখন এভাবে চুপ করে থাকবি বল?
-হ্যা বল..
-শুন নিজের খেয়াল রাখবি, ঠিক মত খাবি আর ঘুমাবি.. আর ঠিকমত প্রেম করবি..
(মাথা নিচু করে আছে)
-আর হ্যা জীবনে কোনদিন যদি কোন কিছুর দরকার হয় আর যদি নিজে কিছু না করতে পারস সঙ্গে সঙ্গে আমাকে স্বরণ করবি,

অবশ্য যদি বেঁচে থাকি…
(কিছু বলছে না দেখে বললাম)
-আরে ভাবিস না আল্লাহ না নিলে তোর জন্য থাকব, হা হা হা,. .চুপ করে আসিছ কেন রে পাগলি?
বলতে বলতে ওর বাসার সামনে চলে এলাম..
-যা তোর বাসা চলে এল, পথটা কত ছোট তাই না.. আরেকটু বড় হলে ভাল হত.. যা বাসায় যা আর কি বললাম মনে রাখিস হ্যা…
(রিক্সা থেকে নেমে আমার দিকে তাকাল ও কাঁদছে)
-কিরে কাঁদছিস কেন পাগলি?
আমি কে রে আমার জন্য কাঁদছিস.?
-ভাল থাকিস…. বলেই মুখ চেপে দৌড়ে চলে গেল…
একবার ডাকতে ইচ্ছা হল ওকে, কিন্তু পারলাম না চলে এলাম একটুও কাঁদলাম না…
আজও ওর কলের জন্য অপেক্ষা করি, ভাবি এখনই বোধহয় ও কল করবে..
কিন্তু অপেক্ষা শুধুই অপেক্ষা….ভালবাসি তোকে…….

গল্পের বিষয়:
দু:খদায়ক · ভালবাসা

Share This Post

আরও গল্প

সর্বাধিক পঠিত