বেষ্ট ফ্রেন্ডের সাথে অসাধারণ প্রেমের কাহিনী

বেষ্ট ফ্রেন্ডের সাথে অসাধারণ প্রেমের কাহিনী

এই শুভ, তুই সিগেরেট খাস ???? ”

– হুম খাইতো ।
– বাহ, ভালোতো, তাহলে নিশ্চয় গাজাও খাস !!!
– না, এত দুর যায়নি ।
– ভাবতেছি আমিও সিগেরেট খাই দেখমু ! সবকিছুতে experience থাকা ভাল ।
– হা, হা । মেয়ে মানুষ হয়ে সিগেরেট খাবি !!!
– তো কি হয়ছে ।
– না, কিছু না । ধোয়া ছাড়া এত সোজা না ।
– তো, তুই আসছ কিসের জন্য হারামী ! তুই শিখাবি কিভাবে ধোয়া ছাড়তে হয় । কি শিখাবি তো ??

– হা হা হা, হবে না তোর দিয়ে ।
– দেত, তুই সব সময় এমন করস।

আমার দিয়ে এটা হবে না, ওটা হবে না তো কি হবে । যতসব ।  তুলি মেয়েটা খুবই রসিক । সব সময় মজা করতে পছন্দ করে। শুভও দুষ্টমিতে কম না । তুলিকে কথায় কথায় চেতিয়ে তুলতে শুভর খুব ভালই লাগে ।

তুলিরও ভালো লাগে শুভর উপর অভিমান করে বসে থাকতে যতক্ষণ না পর্যন্ত শুভ এসে তাকে মৃদু বাক্যে “সরি” বলে । শুভর সাথে তুলির বন্ধুত্বের সম্পর্ক এই নিয়ে ১ বছরের ও উপরে । এই একবছরে তারা পরস্পর-পরস্পরকে অনেক ভালবেসে ফেলছে কিন্তু কেউ-কাউকে তা জানায় নি । তবে তুলি, শুভর হাব-ভাব দেখে বুজে ফেলেছে যে শুভ তাকে ভালবাসে। শুভ চায় তুলিকে তার মনের কথা খুলে বলতে, এর আগেও অনেকবার বলতে চেয়েছিল কিন্তু তার বুক ফুটে তো মুখ ফুটেনা । তুলিরও একই অবস্থা ! শুভকে বার বার তার মনের কথা বলতে চাইলেও বলা হয়নি। কিন্তু এইভাবে আর কতদিন !!! তাই শুভ সিদ্ধান্ত নিল যে আজকেই তুলিকে সে প্রপোজ করবে । তুলিও মনে মনে তাই ভাবছিল ” এই বলদের দ্বারা কখনও আমাকে প্রপোজ করা সম্ভব না, যায় করার আমাকেই করতে হবে । কথায় আছেনা লেডিস ফাস্ট ” এই ভেবে তুলি, শুভকে ফোন দিল….

– “কিরে বেয়াদব তুই কোথায় ?
– “কেন বাসায় আর কোথায় থাকব ”
-“কাজ আছে আজকে ? বের হতে পারবি ? তোকে একটা সারপ্রাইজ দিব ! ”
-” কিসের সারপ্রাইজ !! ”
– “সিক্রেট !! আগে আয়তো”
– “কোথায় আসব ?”
– “কেন আগ্রাবাদ শিশু পার্কের সামনে। ”
-” আচ্ছা ঠিক আছে” দুপুর গড়িয়ে বিকেল এলো তারা পার্কে মিলিত হল । শুভর হাতে আজ একটা লাল টুকটুকে গোলাপ তা তুলিকে দিয়ে বলল

– ধর এটা তোর জন্য ।
– ” ওরি বাবা, আজকে কি হলো তোর ! আগে কখনও তো এত সুন্দর ফুল দিস নি !! ”
-” আজকে চোখে পড়ল তাই আনলাম আরকি ”
-” কিন্তু আমিতো তোর গার্লফ্রেন্ড না ”
-” তো কি হয়ছে, বন্ধুকে বন্ধু গোলাপ দিতে পারেনা তুলি মনে মনে বলল ” বেকুপ, সোজাসুজি বলে ফেলনা তুই আমাকে ভালবাসিস !! আমি কি তোকে খুন করব। আমিও যে তোকে অনেক ভালবাসি পাগলা। জানি তুই পারবিনা । যা বলার আমাকেই বলতে হবে ”

-” শুভ, তুই এমন কেন বলত। মনের কথা মনে রেখে দিস। আমি কিছু বুজিনা না । জানি তুই আমাকে কথাটা বলতে পারবিনা আমিই তোকে বলছি ” ভালবাসি, শুধু তোমাকেই ভালবাসি, I love u shuvo ” তুলির এই কথাটা শুভর কাছে স্বপ্নের মতই মনে হল, নিজেকে সে কিছুতেই বিশ্বাস করতে পারছে, কি হচ্ছে এইসব।। তুলি কি সত্যিই এই কথাটা বলেছে ! শুভ পুরাই বাকরুদ্ধ হয়ে গেল। তা দেখে তুলি বলল….

– ” তোমার দিয়েই হবে আমার জীবনের শুরু, আর তোমার দিয়েই হবে আমার জীবনের শেষ, Do you love me shuvo ??? say yes or no…..”

– “হি, হি । আমি তোমাকে ভালবাসি তুলি”
-” ভালবাস ! my foot.. তাহলে আমাকে আগে জানাও নি কেন ? ”

-” তুমিইতো বলতে লেডিস ফাস্ট তাই । চলো আজকে রিলেশনশিপ ট্রিট দি । আজকে আমরা একসাথে সিগেরেট খাব আর তোমাকে সিগেরেট খাওয়া শিখাবো !!! (দুষ্টমি করে) ”

-” কিইইই, কি বললে তুমি ?? আবার বলতো!!! ”
-” না, মানে তুমিইতো বলেছিলে সিগেরেট খাওয়া শিখবা !! ”

-” তখন তো তুমি আমার বন্ধু ছিলে, এখন যে বয়ফ্রেন্ড হবা সেটা কি জানতাম !! আর যদি কখনও তোমাকে সিগেরেট হাতে দেখি তোমার গলা টিপে দিব বলে দিলাম। প্রমিস করো আর কখনও খাবে না”

-” আচ্ছা ঠিক আছে প্রমিস ”
– ” একটা বিষয় লক্ষ করলাম । তুমি সব কিছু বলো আমার দ্বারা কিছু হবে না। আজ তা বললে না !! ”
– “হবে না কেন অবশ্যই হবে ! তখন আমিও কি জানতাম তুমি আমার গালফ্রেন্ড হবে ”
-” আমার ডায়েলগ আমাকেই মারতছ ! ”
– ” তোমার ডায়েলগ my foot কার না কার থেকে কপি মারস !! ”
-“সবাইকে নিজের মত ভাবিস কেন, হুম ”
-” হা হা, কারণ সবাই আমার মত তুমিই ব্যাতিক্রম বলেই তুলিকে জরিয়ে ধরলো শুভ । তাদের নতুন জীবন শুরু হলো ।

গল্পের বিষয়:
ভালবাসা
loading...

Share This Post

সর্বাধিক পঠিত