কলা দা ও তার প্রেমিকা

কলা দা ও তার প্রেমিকা

কলা দা ডেটিং করছে। গভীর আবেগে প্রেমিকার হাত ধরে বলল-ও আমার যে দাঁড়িয়ে যাচ্ছে।
প্রেমিকা কলা দার মুখের দিকে তাকিয়ে বলল-এতেই দাঁড়িয়ে গেল।
-আরে তুমি যা ভাবছ তা না। আমার হাতের লোমগুলো তোমার ছোঁয়ায় দেখ দাঁড়িয়ে গেছে।
-কলা আমি কিন্তু হট হয়ে যাচ্ছি। যেকোনো সময় কিছু একটা ঘটে যেতে পারে।
কলা দা গদগদ স্বরে বলল-জান বিয়ের আগে কিছু করা ঠিক না। নিজেকে সংযত কর।

প্রেমিকা কিছুটা রেগে বলল-আরে মাথা কি তোমার গেছে? প্রচণ্ড গরম পড়েছে। কেমন যেন সবকিছু আবছা আবছা লাগছে। প্লীজ বোতল হতে মাথায় একটু পানি দাও।
কলা দা বোতল হতে কিছু পানি মাথায় দিয়ে বলল-আহা কি সুগন্ধ? মনে হচ্ছে সব খেয়ে ফেলি।
-খেয়ে ফেলবে মানে? তুমি কি আমার সব চুল খেয়ে ফেলবে? ছি ছি কলা।
-আরে চুল খাব কেন? তুমি বাড়ি থেকে যে আম নিয়ে এসেছ,সে আম সবগুলো খেতে ইচ্ছে করছে।
-ও তাই। তাহলে নাও।

এই বলে কলা দাকে একটা আম দিল। কলা দা আম ছিলিয়ে কামড় দিয়ে খুব মজায় খেতে লাগল। আমের দিকে তাকিয়ে দেখল,যে অংশে পোকা ছিল,তাতেই কামড় দিয়েছে। মুখের ভিতর কি যেন হাটছে? কলা দা হা করতেই মুখ হতে একটা পোকা বের হয়ে এল। এই কান্ড দেখে মেয়েটা হাসছে। কারও এমন ঘটনা দেখে কেউ হাসতে পারে কলা দার জানা ছিল না। মেয়েটার উপর প্রচণ্ড রাগ উঠছে। সাথে পাচ্ছে কান্না। মেয়েটা বলবে না আমে পোকা আছে। মেয়েটা আরেকটা আম কলার হাতে দিয়ে বলল-খুব সুগন্ধ,দেখতেও ফাটাফাটি।

কলা দার রাগ গেল আরও বেড়ে। তবুও নিজেকে সংযত করে বলল-তুমি বলবা না আমে পোকা আছে?
-আমে পোকা থাকতে পারে,এটা বলার কি আছে? দেখতে ফাটাফাটি হলেও ভিতর কিন্তু গণ্ডগোল থাকতে পারে বস, এখন হতে বিষয়টা মাথায় রাখবে।

গল্পের বিষয়:
কৌতুক

Share This Post

আরও গল্প

সর্বাধিক পঠিত