বিক্রয়মূল্য মাত্র ৩০ টাকা

বিক্রয়মূল্য মাত্র ৩০ টাকা

একদিন ডাক্তারদের চা-আড্ডায়:

মর্নিং ওয়াক এর পরে কয়েকজন ডাক্তার চায়ের দোকানে আড্ডা দিচ্ছেন। তারা দেখতে পেলেন ফুটপাত দিয়ে এক ভদ্রলোক খুঁড়িয়ে খুঁড়িয়ে হেটে তাদের দিকেই আসছে।

চায়ে চুমুক দিতে দিতে একজন ডাক্তার মন্তব্য করলেন: কি হয়েছে লোকটার বলতো ?

পাশে বসে থাকা ডাক্তার বললেন: Left knee arthritis.

২য় ডাক্তর বলে উঠলেন: না, না, আমার মনে হয় Plantar Fasciitis

চা পান বাদ দিয়ে ৩য় ডাক্তার খুব মনযোগ নিয়ে খুঁড়িয়ে খুঁড়িয়ে আসা লোকটিকে খেয়াল করলেন।

এবার তিনি বললেন: না রে ভাই, It is a clear case of Ankle sprain

৪র্থ ডাক্তারের বক্তব্য, ভালো করে দেখ, লোকটা একটা পা ঠিকভাবে উঠাতে পারছে না, এটা Foot drop কেস..তার Lower motor neurons ঠিক মতো কাজ করছে না ! বুঝলে?

এতোক্ষণ যে ডাক্তার চুপ করেছিলেন তিনি বললেন: আমার তো এটা Hemiplegia র scissors gate মনে হচ্ছে।

এবার যে ডাক্তার সর্বপ্রথম লোকটিকে খেয়াল করে প্রশ্ন ছুঁড়েছিলেন তিনি কিছু মন্তব্য করার আগেই ভদ্রলোক তাদের কাছে এসে পড়েছেন।

তাদেরকে দেখে ভদ্রলোক বললেন, ভাই এখানে আসপাশে কোনো মুচির দোকান আছে কি? আমার সেন্ডেলের বুড়া আঙ্গুলের জায়গাটার সেলাই খুলে গিয়ে আমাকে বেশ বেকায়দায় ফেলেছে। ভালো করে হাঁটতেই পারছিনা।

৬ ডাক্তার তখন একে অপরের মুখ দেখাদেখি শুরু করল।

2)
লেডিস সিটে বসা

বাসে প্রায় প্রতিদিনই একসঙ্গে যান মন্টু ও কুদ্দুস সাহেব। তাদের দুজনের মাঝে এভাবেই পরিচয়। মন্টু যায় কলেজে আর কুদ্দুস সাহেব যান অফিসে। একদিন কুদ্দুস সাহেব বাসে উঠে দেখেন বসার সিট নেই। তিনি দেখলেন মন্টু একটা মহিলাদের জন্য সংরক্ষিত সিটে বসে আছে। কুদ্দুস সাহেব সুযোগটা কাজে লাগাতে চাইলেন।

কুদ্দুস সাহেব: লেডিস সিটে বসে আছো কেন আঙ্কেল? আপনারা তরুণরা যদি এমন করেন…তাহলে দেশ কীভাবে আগাবে!

মন্টু: ফেসবুকে মরিয়ম নামের যে মেয়ের সঙ্গে বাসে আর বাসায় রাতে রসালো চ্যাট করছেন গত একমাস ধরে- সেটা কিন্তু মামা আমি। আপনারা মুরুব্বিরা যদি এই বয়সে এমন করেন…তাহলে

কথাটা শেষ হতে না হতেই এই দু:খ সামলাতে পারলেন না কুদ্দুস সাহেব। তিনি মাথা ঘুরে পড়ে গেলেন।

3)

বল্টু গেছে বইয়ের দোকানে বই কিনতে।

বিক্রেতাঃ স্যার, এ বইটা নিয়ে যান। এটা একটা ভয়ের বই। এতে কালো জাদু সম্পর্কে লেখা আছে…!

বল্টুঃ দাম কত…?

বিক্রেতাঃ তিন হাজার টাকা।

বল্টুঃ এইটুকুন পাতলা বইয়ের এত দাম….!

বিক্রেতাঃ জি স্যার…! এ বইতেও কালো জাদুর প্রভাব আছে। (বিক্রেতা ফিসফিস করে বললো ) ভুলেও এ বইয়ের শেষ পৃষ্ঠাটা খুলবেন না…! খুললেই আপনি জ্ঞান হারাবেন…!

কৌতূহল সামলাতে না পেরে বইটি কিনল বল্টু । পুরো বইটা পড়ল সে, কিন্তু শেষ পৃষ্ঠা খুলল না । যদি জ্ঞান হারিয়ে যায়।

এভাবে চলল কিছুদিন। কিন্তু কৌতুহল কমেনা তার। একদিন সাহস করে বল্টু শেষ পৃষ্ঠাটা উল্টে দেখল। তাতে লেখা আছে – সর্বোচ্চ বিক্রয়মূল্য ৩০ টাকা!

গল্পের বিষয়:
কৌতুক

Share This Post

সর্বাধিক পঠিত