ভদ্র বাবা (VS) ফাজিল ছেলে

ভদ্র বাবা (VS) ফাজিল ছেলে

দুস্ত আমি আমার আব্বা কে খুব ভয় পায়। (আকাশ) কি রে কি বলিস এসব। (আমি) আব্বার সামনে গেলেই আমার হাটু কাপে। (আকাশ) হাহাহ হুহুহু হিহিহি। (আমি) হাসতাছিস কেন।তুই কি তর আব্বা রে ভয় পাস না। (আকাশ) না একটু ও না।আমার আব্বা ই আমায় ভয় পাই। (আমি) ওওওও তাই নাকি। (আকাশ)হুম আমি যা বলি তাই করে আমার বাবা।বাবার সামনেই বাবার পকেট থেকে সিগারেট নিয়ে খাই। (আমি) কি বলিস তর বাবা কিছু বলে না। (আকাশ) আরে আমাকে কিছু বলার সাহস আছে নাকি আমার বাবার।আমাকে তো ভয় পাই। (আমি) ওও তাই নাকি। (আকাশ) হুম আমার বাবার পকেট থেকে আমি প্রতিদিন ই টাকা নেই কিন্তু বাবা আমায় কিছু বলার সাহস পায়না। আমি) ওওও তাই। (আকাশ)

আরে বেডা আমার ভয় এ আমার বাবা থরথর করে কাপে।আর আমি আমার বাবা কে চাচা বলে ডাকি। (আমি) আরে তুই কি বলিস এসব। (আকাশ) আরে আমার বাবা হলো তার বংশের একমাত্র ছেলে।তাই আমার তো চাচা নাই।তাই বাপেরেই চাচা ডাকি। (আমি) দুস্ত তর পিছে তর চাচা। (আকাশ) আকাশ এই কথা বলে দৌড় দিলো। আমি কিছু বুঝিতে পারিলাম।আমি পিছনে ফিরে দেখতে পেলাম আমার চাচা দাঁড়িয়ে আছে।ও সরি আমার বাবা।বাবা আমার দিকে কটমট করে তাকিয়ে আছে।তার মানে বাবা আমার কথা গুলো সব শুনে ফেলেছে।আমি আর কিছু না ভাবিয়া খিচ্চা একখান দৌড় দিলাম। পিছন থেকে বাবা বলিতে লাগিলো। ঐ দৌড় দেস কেন। আজ বাসাই যাইয়া দেখ বাঁদরামো সব বাহির করমু। আকাশ আমার আগে আগে দৌড়াচ্ছে আমি তার পিছে। এই সালা দাড়া।আর পারছিনা। (আমি) সালা তুই এতো মিথ্যা কথা কস। (আকাশ) কি মিথ্যা বলছি। (আমি) তর বাপ নাকি তরে দেইখা ভয় পাই, তাইলে তর বাপেরে দেইখা দৌড় দিলি কেন। (আকাশ)

ইসসসসস রে আমি তো আজ ঠিক মতোই ধরা খাইছি।আসলে বাবার পকেট থেকে রোজ ই টাকা চুরি করি কিন্তু বাবা বুঝতেই পারেনা। মাঝে মাঝে দু একটা সিগারেট ও চুরি করি।কারন বাবা আর আমি এক ব্র্যান্ড এর সিগারেট ই খাই তো তাই।কিন্ত আজ তো বাবা মনে হয় সব শুনে নিয়েছে।বাসায় গেলে আজ আমার বারো বারো টা বাজাবে।আমি এসব ভাবছি এমন সময় আকাশ আবার বলে উঠলো। কি রে কথা বলছিস না কে। (আকাশ) ঐ সালা চুপ, আমি আজ বাসায় যাবো কিভাবে সেই চিন্তায় মরতাছি। (আমি) কেন এখন মরো কেন।বানিয়ে বানিয়ে তো অনেক চাপা মারতে পারো (আকাশ) ঐ সালা তুই আগে বললিনা কেন আমার বাবা আমার পিছনে দাঁড়িয়ে আছে। (আমি)দুস্ত তুই যে বানিয়ে বানিয়ে কথা গুলো বলছিলি সে গুলো শুনতে আমি ব্যস্ত ছিলাম তাই খেয়াল করিনাই।(আকাশ) ভালা করছো।এখন বাসাই গেলে আমারে কি যে করবো আল্লাহ জানে। (আমি) এই বলে আমি বাসার উদ্দেশ্যে রওনা দিলাম। হে আমার নাম হৃদয়। বাবা মার একমাত্র সন্তান।কথায় আছে না, যে অতি আদরে সন্তান বাদর হয়।আমি ও সেই রকম আর কি।

বাসার দরজার সামনে ভিতরের ঢুকবো।এমন সময় বাবার চিল্লাচিল্লি শুনে দাঁড়িয়ে পরলাম। আমি নাকি তোমার ছেলে চাচা লাগি। (বাবা) কি বলতাছো এসব। (মা) ঠিক ই বলতাছি।আমার পকেট থেকে সিগারেট চুরি করে খাই তোমার ছেলে। (বাবা) এই পাগল হয়ছো তুমি। (মা) হ্যা পাগল ই হয়ছি।তোমার ছেলে রাস্তায় রাস্তায় বলে বেড়ায়, যে আমি নাকি তাকে দেখে ভয় পাই। (বাবা) হুম আজ আসুক সে তারপর বুঝাবো। (মা) কি রকম বাদর চিন্তা করেছো একবার, আমায় বলে আমি নাকি তার চাচা লাগি।বাপেরেও চাচা বলে। (বাবা) আজ একবার আসতে দাও তার পর বুঝাবো। (মা) আমার না খুব ক্ষুধা লাগছে।তাই আমি এতো কিছু চিন্তা না করিয়া ঘরের ভিতর ঢুকেই পড়লাম। মা গো ওওও মা, তোমার এই ক্ষুধার্ত ছেলে টাকে কিছু অন্ন দাও। (আমি) এই যে আইছে তোমার গুণধর ছেলে।(বাবা)

আমি আর কিছু বলিবার সুযোগ পাহিলাম না।এমনি মা আমার কান ধরিয়া ফেলিলো। শয়তান ছেলে অনেক বাদর হয়েছিস।আজ তর সব বাঁদরামো বের করবো আমি। (মা) অতঃপর, আয়ায়ায়ায়ায়া উউউউউহ এএএএএএএ ইইইইইইইই ই মা আস্তে। ঘর টা এখন নিরব।আমি সোফাই বসে আছি।মা আমার কান টা মলে মলে মুলার মতো বানিয়ে দিয়েছে। বাবা আমার পাশে দাঁড়িয়ে আছে।আমি বাবার মুখের দিকে তাকিয়ে খেয়াল করলাম বাবা আমি দেখে মিটি মিটি হাসছে। আমি মনে মনে বলিতে লাগিলাম হাসো হাসো ভালো করে হেসে নাও।একটা সুযোগ পাই আগে তার পর তোমার হাসি বের করবো। আমার বাবা আমার মাকে খুব ভয় পাই।তাই মনে মনে শপথ করিলাম মা কে দিয়েই তোমার বারো টা বাজাবো।

আজ আমি কলেজ থেকে বাসাই আসতাছি।এমন সময় খেয়াল করলাম আমার বাবা পাশের বাসার আন্টির সাথে রাস্তায় দাঁড়িয়ে কথা বলতাছে। আহহহহহহ কি অপূর্ব সুযোগ।আমার প্রতিশোধ টা এবার ভালো ভাবেই নিবো।আমার মাথা একটা শয়তানি বুদ্ধি চাপলো। আমি লুকিয়ে লুকিয়ে বাবা আর ঐ আন্টির কিছু ফটো খিচলাম আমার ফোনে।আহহকি অপূর্ব দৃশ্য। ফটো গুলো সেই রকম উঠেছে।যেন প্রেমিক আর প্রেমিকার ছবি।মনে মনে আমি কয়েক বার এই গান টা বললাম। তো খিচ মেরি ফটো, তো খিচ মেরি ফটো, তো খিচ মেরি ফটো  প্রিয়ায়ায়ায়ায়ায়ায়ায়া। ডিয়ার বাবা এবার আমি তোমার বারো টা বাজাবো।সেদিন মায়ের হাতে আমায় কেলানি খাইয়ে ছিলে।এবার আমি প্রতিশোধ নিবো প্রতিশোধ। হাহাহাহাহাহাহাহাহ।

আমি বাসাই আসলাম।আজ আর মাকে কিছু বললাম না।মাথাই আরো শয়তানি বুদ্ধি আসতাছে। কিছুক্ষন পর বাবাও বাসাই আসলো।বাবার ফোন টা টেবিলে রাখা।আমি বাবার ফোন টা নিলাম। তারপর আমি আমি আমার ফেসবুকে ঢুকে ঐ আন্টির আইডি থেকে আন্টির কিছু পিক ডাউলোড দিলাম।আর সেই পিক গুলা বাবার ফোনের গেলারিতে ঢুকিয়ে দিলাম।বাবা এবার বুঝবা ঠেলা কারে কয়।বাবার ফোন টা এবার রেখে দিলাম। প্রায় কিছুক্ষন পর বাবা আর মা বসে আছে। এবার একটু ভাব নিয়ে। মা তোমায় একটা কথা অনেক দিন ধরেই বলার চেষ্টা করছি কিন্তু পারছিনা। (আমি) কি কথা বল (মা) মা কথা টা কিভাবে বলবো বুঝতে পারছিনা। (আমি) এমন সময় বাবা বলে উঠলো।

এতো ভাব না নিয়ে বলে ফেল কি বলতে চাস। (বাবা) আমি মনে মনে বলিতে লাগিলাম।বাবা আজ তোমার তো বারো টা বাজাবো। মা কথা টা হলো। (আমি) আরে কি বল। (মা) কথা টা হলো বাবা পাশের বাড়ির ঐ আন্টির সাথে লাইন মারার চেষ্টা করছে। (আমি) আমার কথা শুনেই বাবা লাফ দিয়ে উঠে পড়লো। ঐ তুই কি বলিস এসব। (বাবা) মা আমার কাছে সব প্রমান আছে। (আমি) মা বাবার দিকে কড়া নজরে তাকালো।আমি বুঝতে পারলাম বাবা কিছু টা ভয় পেয়ে গেছে। ঐ কি প্রমান আছে তএ কাছে। (বাবা) মা তুমি বাবার ফোন টা নাও আগে। (আমি) আমার কথা শুনে বাবার হাত থেকে মা ফোন টা টান মেরে নিয়ে নিলো। মা,,বাবার ফোনের গ্যালারি টা চেক করো। (আমি)

মা গ্যালারি চেক করে দেখতে পেলো ঐ আন্টির ছবি গুলা।মা এবার বাবার দিকে কটমট করে তাকিয়ে আছে। মা আমার ফোনে তাদের প্রেম আলাপের কিছু দৃশ্য আছে। (আমি) এবার আমি মা কে ঐ দিনের তুলা পিক গুলো দেখালাম। এবার মা তেলেবেগুনে জ্বলে উঠেছে।বাবা এবার চিৎকার দিয়ে বলে উঠলো। এই সব মিথ্যা আমাকে ফাসানো হচ্ছে। (বাবা) মা বাবা কে আর কোনো কথা বলার সুযোগ ই দিলো না। মা তার একশন শুরু করে দিলো।আমি চুপচাপ ঘর থেকে বেড়িয়ে পড়লাম।বাবা এবার বুঝো ঠেলা কারে কয়। আমি আমাদের বাগানে বসে আছি।বাসার ভিতরের মা এর চিল্লাচিল্লি শুনতে পাচ্ছি।বাবা আজ তুমি শেষ।আমি কয়েক বার লুঙ্গী ডান্স দিলাম।

প্রায় কিছুক্ষন পর। আমি বাগানে বসে আছি।এমন সময় বাবা এসে আমার পাশে বসলো।আমি বাবার দিকে তাকিয়ে দেখলাম বাবার মুখ টা কেমন জানি শুকিয়ে গেছে। বাবা তুই আমাকে এভাবে ফাঁসালি কেন? (বাবা) প্রতিশোধ নিলাম। সেই দিনের প্রতিশোধ। (আমি) তুই কিভাবে করলি এসব। (বাবা) হাহাহা আমি আমি তোমাকে ফাসানোর জন্য এই মিথ্যা জিনিস গুলো মায়ের সামনে ধরেছি। (আমি) এমন সময় কেন যেন পিছন থেকে আমার কান টেনে ধরলো।আমি পিছন ফিরে দেখতে পেলাম আমার মা জননি।ইসসসসস আবার ধরা খেয়ে গেলাম। আমি আগেই বলেছিলাম এসব তোমার ছেলের প্ল্যান আমাকে ফাঁসানোর জন্য। (বাবা) তারপর আবার সেই,,আয়ায়ায়ায়ায়া উউউউউউ ইইইই মা আস্তে। বাকি টা ইতিহাস,,।

সমাপ্ত

গল্পের বিষয়:
ফ্যান্টাসি

Share This Post

সর্বাধিক পঠিত